রাজশাহী সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর ২০২২, ২১শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯


মান্দায় চোরকে দেখে ফেলায় বিধাবাকে হত্যার চেষ্টা


প্রকাশিত:
২৭ আগস্ট ২০২২ ১৯:৪২

আপডেট:
২৭ আগস্ট ২০২২ ২০:০৫

প্রতীকী ছবি
নওগাঁর মান্দায় চোরকে দেখে ফেলায় মুঞ্জুআরা নামে এক বিধাবাকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে বাড়ির পাশের এক চোর।
 
ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে উপজেলার পরানপুর ইউপির কালাচিতা গ্রামে।আহত বিধবা মঞ্জুয়ারা বেওয়া (৬০) কালাচিতা গ্রামের মৃত লবির উদ্দিন সরদারের স্ত্রী।
 
বখাটে ও চোর উজ্জল হোসেন (৩৫) একই গ্রামের জয়েন উদ্দিন ওরফে চেরুর ছেলে।
 
জানা গেছে, বিধবা মঞ্জুয়ারা বেওয়া স্বামী মারা যাবার পর থেকে একা তার বাড়িতে বসবাস করেন। তার একটি মেয়ে জামাইয়ের সঙ্গে ঢাকায় থাকেন। সেই সুযোগে বখাতে চোর যুবক উজ্জল হোসেন শুক্রবার গভীর রাতে বিধবার বাড়িতে চুরির উদ্দেশ্য প্রবেশ করেন।  ওই সময় চোরকে বিধবা দেখে ফেলায়, তার হাতে থাকা চাপাতি দিয়ে মাথায়  এলোপাতারি আঘাত করেন। তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশী শরিফুল ইসলাম ও জবা বেগম এগিয়ে আসলে প্রতিবেশি ওই বখাটে চোর স্থানীয়দের সামনে পালিয়ে যায়।
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, স্থানীয় ইউপি সদস্য মামুনুর রশিদ ওরফে মামুনের ক্ষমতার জোরে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন বকাটে চোর উজ্জল। স্থানীয়রা তাকে ধরতে চাইলে ইউপি সদস্য নিষেধ করেন। তারা আরো জানান, বিধাবার মাথার ১৪ টি স্থানে চাপাতি দিয়ে আঘাত করেছেন। সে এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজে মৃত্যেৃর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।
 
ইউপি সদস্য মামুনুর রশিদ বলেন, আমি উজ্জলকে ধরতে নিষেধ করছি এটা সঠিক না। 
 
হামলার পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করতে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। অবস্থা আশাংঙ্কাজনক হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। বর্তমানে সে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন।
 
এ ব্যাপারে মান্দা থানার (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন,  এরকম ঘটনা শুনেছি, তবে এখনোও অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 
 
আরপি/ এসএডি-৯
 


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top