রাজশাহী রবিবার, ২৬শে জুন ২০২২, ১৩ই আষাঢ় ১৪২৯


ঘরের মেঝে খুঁরে বের করা হলো যুবকের মরদেহ


প্রকাশিত:
৯ জুন ২০২২ ২২:৫৭

আপডেট:
২৬ জুন ২০২২ ০৭:৫০

প্রতীকী ছবি

নওগাঁর রাণীনগরে নির্মানাধীন ইটের ঘরের মেঝে খুঁড়ে হযরত আলী (২৩) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার পূর্ব বালুভরা মন্ডল পাড়া থেকে এই মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

হযরত আলী ওই গ্রামের জমসেদ আলীর ছেলে। এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক নাহিদসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার খবর পেয়ে নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকিবুল ইসলাম ইবনে রহমান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) গাজিউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

হযরত আলীর ফুফু দেলেরা বিবি জানান, ভাতিজা হযরত অটো চার্জার ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতো। গত শুক্রবার রাতে স্থানীয় একটি অটো চার্জার ভ্যান গ্যারেজে চার্জ দেয়ার জন্য ভ্যান রেখে চলে যায়। এরপর থেকে হযরত নিখোঁজ হয় এবং ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এর পরে অনেক খোঁজা-খুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি।

দেলেরা জানান, প্রতিবেশি মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে নাহিদ (২৪) এর সাথে নাহিদের বাড়ীতে থাকতো। পরবর্তিতে বুধবার ওই বাড়ীতে গিয়ে আবারো হযরতের খোঁজ করে এবং বাড়ীর মধ্যে নির্মানাধীন ইটের ঘরের মেঝের মাটি খনন করা দেখতে পায়।

এক পর্যায়ে ফুফু দেলেরা ও হযরতের বাবা জমসেদ আলী বৃহস্পতিবার থানায় গিয়ে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে প্রথমে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাড়ীর মালিক নাহিদকে আটক করে থানা হেফাজতে নেয়। এর পর ওই বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ওই ঘরের মেঝের মাটি খুঁরে বিকেল পৌনে চারটা নাগাদ হযরতের মরদেহ উদ্ধার করে।

রাণীনগর থানার ওসি শাহিন আকন্দ বলেন, মাটি খুঁরে পুঁতে রাখা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ীর মালিক নাহিদসহ আরো দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, একটি প্লাস্টিকের বস্তার মধ্যে তুলে ন্যাপথালিন দিয়ে মরদেহ রেখেছিল ঘাতকরা। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কেন কি কারনে এমন নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

 

 

আরপি/এসআর-০৬



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top