রাজশাহী বুধবার, ২৪শে জুলাই ২০২৪, ১০ই শ্রাবণ ১৪৩১


নিয়ামতপুরে কলেজছাত্রীর মাথার চুল কাটার ঘটনায় নারী আটক


প্রকাশিত:
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২৩:১৭

আপডেট:
২৪ জুলাই ২০২৪ ১৫:০৬

প্রতীকী ছবি

নওগাঁর নিয়ামতপুরে রাস্তা থেকে তুলে কলেজ ছাত্রীর মাথার চুল কাটার ঘটনায় রুপা (২০) নামে আরেক আসামীকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হলো। মঙ্গলবার রাতে জেলার মান্দা উপজেলায় তার ফুফুর বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। রুপা প্রধান আসামী রায়হান এর স্ত্রী।

তাদের বাড়ি উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের ঝাজিরা গ্রামে হলেও উপজেলা সদরে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়ামতপুর থানার উপ-পরিদর্শ (এসআই) মতিয়ার রহমান বলেন, রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে মাথার চুল কাটার ঘটনায় গত (২১ সেপ্টেম্বর) কলেজ ছাত্রীর বাবা আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে রায়হানকে প্রধান আসামী করে অজ্ঞাত আরো দুইজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। মামলার পর রায়হানকে আটক করে মঙ্গলবার জেল হাজতে পাঠানো হয়। মামলার দুইদিন পর মঙ্গরবার রাতে রায়হানের স্ত্রী রুপাকেও আটক করে বুধবার দুপুরে আদালতের শাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে । এছাড়া অন্যান্য আসামীদের আটকের চেষ্টা অব্যহত আছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর (রোববার) বিকেল ৫টার দিকে ওই কলেজ ছাত্রী কম্পিউটার প্রশিক্ষন শেষে বাড়ি ফিরছিল। বাড়ি ফেরার পথে বালাহৈর জামে মসজিদের কাছ থেকে রায়হান ও তার তিন বন্ধু তাকে জোর করে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে তার ভাড়া বাড়ীতে নিয়ে যায়। এরপর রায়হান ও তার স্ত্রী রূপা কলেজ ছাত্রীর মাথার চুল কেটে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। সেখানে তাকে প্রায় দুইঘন্টা আটকে নির্যাতন করা হয়। ওই ছাত্রীর প্রায় দেড় ফুট লম্বা মাথার চুল কেটে ফেলা হয়।

এরপর অশ্লীল ছবি তুলে কাউকে কিছু না বলার জন্য হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। কলেজছাত্রী বাড়ি ফেরার পর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। ঘটনার একটি ভিডিও ফেইসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

 

আরপি/আআ-১১



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top