রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ৩০শে মে ২০২৪, ১৭ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নিজ অর্থায়নে রাস্তা সংস্কার করলেন চা বিক্রেতা বাদশা


প্রকাশিত:
৩১ অক্টোবর ২০২৩ ১৮:৪০

আপডেট:
৩০ মে ২০২৪ ০৯:১২

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

নাটোরের লালপুর বাজারের রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধ হয়ে থাকে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। মানুষের ভোগান্তির কথা ভেবে নিজ অর্থায়নে ওই রাস্তাটি সংস্কার কাজ শুরু করেছেন বাদশা আলী (৩৫) নামে এক চা বিক্রেতা।

সরেজমিনে দেখা যায়, ইটের খোয়া দিয়ে সংস্কার করা হয়েছে রাস্তাটি। তবে কাজ এখনো পুরোপুরি শেষ হয় নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় একযুগ ধরে উপজেলার এই প্রধান বাজারটিতে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সারাবছর পানিতে নিমজ্জিত থাকে। এটি সমাধানে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কেউ এগিয়ে আসেনি।

আরও পড়ুন: সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত ৭ জনের মৃত্যু, নতুন ভর্তি ১৭৮৭

এমন পরিস্থিতিতে গত শুক্রবার রাস্তা উঁচু করতে নিজ অর্থায়নে ইটের খোয়া দিয়ে সংস্কার কাজ শুরু করেন। এর আগেও তিনি এলাকার বিভিন্ন গ্রামীণ সড়ক সংস্কার করেছেন তার অর্থায়ন ও সেচ্ছাশ্রম দিয়ে।

এ বিষয়ে সুজন মাহমুদ নামে বাজারের এক ব্যবসায়ী বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই রাস্তাটির এই বেহাল অবস্থা। রাস্তাটির সংস্কারের জন্য একাধিকার জনপ্রতিনিধিদের কাছে গেলেও তাঁরা কোনো ব্যবস্থা নেননি। কিন্ত বাদশা নিজেই একজন হতদরিদ্র মানুষ। অথচ তিনিই নিজ অর্থায়নে ও সেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে রাস্তা সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছেন।

আব্দুল মোতালেব রায়হান নামে আরো একজন বলেন, বাদশার থেকে অনেকের শিক্ষা নেয়া উচিত। জাতীয় নির্বাচনে বিভিন্ন দলের এতো এতো প্রার্থী আর স্থানীয় নির্বাচনে তো শতাধিক প্রার্থী। প্রত্যেক প্রার্থী যদি একটি করে গর্ত পূরণ করে তাহলে লালপুরের সকল গর্ত পূরণ হয়ে যেতো। যে কাজগুলা জনপ্রতিনিধিদের করা উচিত ছিল, সেই কাজগুলো একজন চা বিক্রেতা করছে। বাদশার এমন মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

আরও পড়ুন: বাবার সাথে ওমরা পালন হলো না দুই বোনের!

জানতে চাইলে বাদশা আলী বলেন, এরাস্তায় পানি জমে থাকায় চলাচলে দূর্ভোগ হচ্ছিলো। তাই নিজের জমানো ৬ হাজার টাকার ইটের খোয়া কিনে রাস্তার আংশিক সংস্কার করেছি। সামাজিক দায়বদ্ধতায় মানুষের জন্য কিছু করার প্রত্যয়ে একাজ করেছি।

বাকি কাজ কবে শেষ এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জমানো টাকা শেষ। কাজকাম কিছুদিন করি। তারপর আবার কাজ শুরু করবো ইনশাল্লাহ।

 

 

আরপি/এসআর-১২



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top