রাজশাহী সোমবার, ২০শে মে ২০২৪, ৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

তাপদাহে অস্থির জনজীবন,স্বস্তি মিলছে পাদ্মার পাড়ে


প্রকাশিত:
২ মে ২০২৪ ১৩:১৬

আপডেট:
২০ মে ২০২৪ ০৫:২৭

রাজশাহী পোস্ট

বৈশাখের প্রখর রোধ ও তীব্র গরমে অতিষ্ঠ রাজশাহী নগরবাসী। দেশের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া টানা তাপদাহে জনজীবনে হাঁসফাঁস অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থা থেকে সহজেই মুক্তি মিলছে না বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এমতাবস্থায় একটু স্বস্তি পেতে অনেকেই ছুটে যাচ্ছেন পুকুর কিংবা নদীর পাড়ে। পদ্মা নদীতে ঘেরা রাজশাহী শহর। এই অতিষ্ঠ গরমে নদীর শীতলতার ছোঁয়া পেতে রাজশাহী নগরবাসীরা ছুটে আসেন পদ্মার পাড়ে। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হলেই মানুষের ঢল নামে পদ্মার পাড়ে। আড্ডায় হাসি ঠাট্টায় মেতে ওঠে পদ্মার পাড়। কেউবা আবার নেমে পড়ে গোছলে। সকলের উদ্দেশ্য গরম থেকে একটু স্বস্তি।

জনজীবনের পাশাপাশি তীব্র গরমে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পশু পাখিরাও। মানুষের পাশাপাশি পদ্মার পাড়ে দেখা যায় নানা ধরনের পশু পাখি। তারা পদ্মার পানিতে তাদের তৃষ্ণা মিটায়, আবার তীব্র গরমে নদীর পাশে শুয়ে ক্লান্তির রেশ কাটায়। প্রায় নজরে আসে এসব পশু পাখিরা নদীর পানিতে তাদের শরীর ভিজিয়ে শান্তি অনুভব করে।

পদ্মা নদী যেমন এই শহরের মানুষগুলোকে একটু স্বস্তির জায়গা করে দিয়েছে, ঠিক অপরদিকে রয়েছে নদীর ভয়াবহ রূপ। এই তীব্র গরমের ক্লান্তি কাটাতে অনেকেই নামে নদীতে গোসল করতে যা তাদের মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। গত এক সপ্তাহে পদ্মা নদীতে পাঁচজন প্রাণ হারায়। তথ্য অনুসারে তারা সকলেই নদীতে নেমেছিল গোসল করতে বা সাঁতার কাটতে।

নীদের পাড়ে ঘুরতে আসা একজন ব্যক্তির সাথে কথা বললে তিনি জানান, রাজশাহী শহরে এতো বেশি গরম শুরু হয়েছে সারাদিন গরমে বের হওয়া অসম্ভব। আবার অতিরিক্ত লোডশেডিং এর জন্য রুমে থাকাও সম্ভব হয় না। তাই বিকেলে বের হয়ে নদীর পাড়ে ঘুরতে আসি। এই নদীর পাড়ে আসলে নদীর শীতল বাতাস শরীর শীতল করে দেয়।

তীব্র তাপদাহ থেকে রক্ষা পেতে সরকার নানা ধরনের গন সচেতনতামূলক পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। আমাদের সকলের উচিৎ সরকারি পদক্ষেপ গুলোকে অনুসরণ করে নিজ নিজ জায়গা থেকে সর্তকতার সাথে পরিবেশের এই ভয়াবহ রূপকে মোকাবেলা করা।

 

 

আরপি/আআ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top