রাজশাহী মঙ্গলবার, ২৭শে জুলাই ২০২১, ১৩ই শ্রাবণ ১৪২৮

৪৫ বছর বয়সী বাগানবিলাস বনসাই’র দাম ৭৫ হাজার!


প্রকাশিত:
১৬ নভেম্বর ২০১৯ ১৬:০৭

আপডেট:
২৭ জুলাই ২০২১ ১১:৪৪

এটি একটি বাগানবিলাস গাছ
স্নিগ্ধ শুভ্র ফুলে ছেঁয়ে গেছে পুরো গাছ। বয়স ৪৫ বছর! এটি একটি বাগানবিলাস গাছ। যেমন দৃষ্টিনন্দন এই বাগানবিলাস, তেমনই এর দাম। ৭৫ হাজার টাকা! অনেকেই ভাবতে পারেন, বিশাল বড় গাছ হবে হয়তো। যে কারনে এমন দাম। না, খুব বড় গাছ নয় এটি। উচ্চতা মাত্র দেড় ফুটের মত। তাহলে এত দাম! অবাক হওয়ার কিছু নেই, এটি একটি বাগানবিলাস বনসাই।

রাজশাহী বনসাই সোসাইটির আয়োজনে রাজশাহী কলেজে ২০তম বনসাই প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হচ্ছে এই বাগানবিলাস বনসাই। এটি তৈরী করেছেন রাজশাহী বনসাই সোসাইটির সদস্য ও বনসাই শিল্পী আকিব।

অনেকেরই হয়তো বনসাই সম্পর্কে জানা নেই। শক্ত কান্ডবিশিষ্ট গাছকে নান্দনিকভাবে খর্বাকৃতি করার শিল্পকে বনসাই বলা হয়। প্রাচীন চীনা শব্দ ‘পেনজাই’ থেকে জাপানী ‘বনসাই’ শব্দের উৎপত্তি। দৃষ্টিনন্দন এই বনসাই বাসা-বাড়ি, হোটেল, অফিস ইত্যাদির সৌন্দর্য বাড়ায় কয়েকগুন। এর থেকে পাওয়া যায় অক্সিজেন।

সুন্দর এই শিল্পকে মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে বিগত ১৯ বছর যাবত রাজশাহীতে বনসাই প্রদর্শনীর আয়োজন করে আসছে ‘রাজশাহী বনসাই সোসাইটি’। তারই ধারাবাহিকতায় এবছর রাজশাহী কলেজে অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিন দিনব্যাপী এ বনসাই প্রদর্শনী। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন, রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান।

শুধু এই বাগানবিলাস নয়, এর পাশেই রয়েছে অর্ধশত বছর বয়সী বিভিন্ন প্রজাতির বনসাই। শিল্পী রেহানা চৌধুরীর তৈরী ৫০ হাজার টাকার তেঁতুলের ক্যাসটেক বনসাই, শিল্পী জাকিরের তৈরী ৫০ হাজার টাকা মূল্যের পাইকড় বনসাইসহ বিভিন্ন দামের ও বয়সী বনসাই শোভা পাচ্ছে এ প্রদর্শনীতে।

এবছর প্রদর্শনীতে ৪৫ জন বনসাই শিল্পীর তৈরী ২৬০টির মত বনসাই প্রদর্শিত হচ্ছে। দেশি-বিদেশী প্রায় ৪০ প্রজাতির বনসাইয়ের মধ্যে রয়েছে কামিনী, জিলাপি, চাইনিজ বট, পাইকড়, বট, তেঁতুল, শেওড়া, বাংলা বট, ঝুমুর, ডুমুর, থাই চেরি, সেফিলেরা, কৃষ্ণচূড়া, ফাইকাস, ফুকেনটি, বাগানবিলাস, লাইকড়, ফুকেট টি, বৈচি, কদবেল, পেন্টাস, বেনজামিন, রেটুসা, রামফি, গোল্ডেন, ভাইরেন্স, বাওবাব, জেড, ফাইকাস লংআইল্যান্ড, থাইচেরী, রঙ্গন, ছাতিমসহ নানারকম বনসাই প্রদর্শিত হচ্ছে।

রাজশাহী বনসাই সোসাইটির সভাপতি সৈয়দ মাহফুজ-ই-তৌহিদ টুট বলেন, বনসাই হচ্ছে লিভিং আর্ট বা জীবন্ত শিল্প। সারা পৃথিবীতে বনসাই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আমাদের দেশেও বনসাইয়ের প্রসার ঘটাতেই আমাদের এই আয়োজন। বনসাইয়ের মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম গাছ সম্পর্কে জানতে পারবে। বর্তমানে বাড়ির পাশের বাগানের জন্য জায়গা পাওয়া যায় না, ফলে ভবিষ্যতে সবুজের ছোঁয়া ও অক্সিজেন পেতে বনসাই খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

প্রদর্শনী আজ শনিবার (১৬ নভেম্বর) সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।
 
 
 
আরপি/এমএইচ
 
 


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top