রাজশাহী শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ই ফাল্গুন ১৪৩০

ভোলাহাটে মাদরাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে পকেট কমিটি গঠনের প্রতিবাদ


প্রকাশিত:
২ জুলাই ২০২০ ০১:৩২

আপডেট:
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:৪৯

ছবি: সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করছেন বিএপির ভোলাহাট উপঝেলার সাবেক ছাত্রদল সভাপতি ও ১নং ইউপির সাবেক ধানের শীষ মনোনয়ন প্রাপ্ত বিএনপির দলীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ ইব্রাহিম(সেলিম রেজা)

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার পাঁচটিকরী আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে সরকারী বিধি লংঘন করে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের প্রতিবাদে মাদরাসার অভিভাবকবৃন্দ ও এলাকাবাসি সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেল ৬টার সময় পাঁচটিকরী আলিম মাদরাসার গেটে আলহাজ্ব আব্দুল গণি বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা ছাত্রদল শাখার সাবেক সভাপতি মোঃ ইব্রাহিম (সেলিম রেজা)।

লিখিত বক্তব্যে তিনি অভিযোগ করেন- মাদরাসার অধ্যক্ষ এমদাদুল হক সরকারী নিয়মনীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কাউকে কিছু না জানিয়ে তার ইচ্ছেমত ২ বছর মেয়াদী কমিটি গঠন করে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে জমা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, কমিটি গঠনের ব্যাপারে বর্তমান মাদরাসার সভাপতি আতাউর রহমান রজব, কমিটির অন্যান্য সদস্যরা, এলাকার অভিভাবকবৃন্দ ও এলাকাবাসি কিছুই জানেন না। যেহেতু মাদরাসাটি উপর পাঁচটিকরী, নামো পাঁচটিকরী, সুরানপুর, তীলোকি, কুমিরজান, বীরশ্বরপুর, হাসপুকুর, পুরাতনহাসপুকুর, চাকপাড়া, ইমামনগর ক্যাচমেন্ট এরিয়ার মধ্যে অবস্থিত মর্মে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এলাকাবাসির জানার কথা ছিলো।

কিন্তু অধ্যক্ষ রহস্যজনক কারণে কাউকে তোয়াক্কা না করে সরকারী বিধি না মেনে পকেট কমিটি গঠন করেছেন বলে এলাবাবাসি ফুঁসে উঠেছে। বক্তব্যে আরো জানা যায়, মাদরাসায় ৭ জন শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগের সম্ভাবনা রয়েছে বলে নিয়োগ ব্যাণিজ্য করার মানসে অধ্যক্ষ তার ইচ্ছেমত কমিটি গঠন করেছেন। 

এছাড়াও অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মাদরাসার শিক্ষার মানোন্নয়ননা হওয়া, সম্পদের তছরুপ হওয়া, স্থায়ী সম্পদ হস্তান্তরসহ বিভিন্ন প্রকার দুনীতির অভিযোগ করা হয়। বিশেষ করে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ভোলাহাট উপজেলা বিএনপি সহসভাপতি আনোয়ারুল ইসলামকে কথিত পকেট কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করে মাদরাসা বোর্ডে তালিকা দাখিল করায় এলাকাবাসির মনে চরম ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে এবং এলাকাবাসী তার কাছে সমনয় করার কথা বললে তিনি তা নাকচ করে দেন।

প্রকাশ থাকে যে, বোর্ডের নিয়মানুযায়ীআগামী ৪ জুলাই ২০২০ বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে, মর্মে ৩ মাস পূর্বে বহুল প্রচারের মাধ্যমে ও নির্বাচনি তফশিল ঘোষণা করে কমিটি গঠনের কথা থাকলেও তা অধ্যক্ষ করেননি।

অভিযোগে আরো জানা যায়, অধ্যক্ষ অসৎ উদ্দেশ্যে বর্তমান সভাপতির স্বাক্ষর জালিয়াতি কারায় প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ করেছেন সভাপতি আতাউর রহমান রজব।

তিনি বলেন, পকেট কমিটি গঠনে তাকেও কিছু জানানো হয়নি।

এলাকাবাসির দাবী- সরকারি বিধি মোতাবেক বহুল প্রচারের মাধ্যমে পুনঃ তফশিল ঘোষণা করে মাদরাসার ক্যাচমেন্ট এরিয়ার মধ্য থেকে সভাপতিসহ অন্যান্য সদস্য গঠনের জোর দাবী করা হয়। জনগণের দাবী মানা না হলে পরবর্তীতে বিক্ষোভ মিছিলসহ বৃহত্তর আন্দোলন করার ঘোষণা দেয়া হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব আফজাল হক সরদার, আলহাজ্ব নেজামুদ্দিন মাস্টার, আলহাজ্ব রাফিজুদ্দিন, আলহাজ্ব সাহাবুদ্দিন, আব্দুল লতিব, আব্দুল হান্নান, আব্দুর নুর, সাইরুল ইসলাম, আদু, আনোয়ারুলসহ প্রায় তিন শতাধিক অভিভাবক ও এলাবাবাসি।

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ এমদাদুল হকের সাথে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া না যাওয়ায় শেষ পর্যন্ত মুঠোফোনে যোগযোগ করেও পাওয়া যায়নি।

 

আরপি/আআ-০১

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top