রাজশাহী শুক্রবার, ১৪ই মে ২০২১, ১লা জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮


পঙ্গুত্বের শঙ্কায় নারী ওয়ার্ড কাউন্সিলর


প্রকাশিত:
৩০ এপ্রিল ২০২১ ২১:০৫

আপডেট:
৩০ এপ্রিল ২০২১ ২১:০৬

ছবি: বনপাড়া পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শামসুন্নাহার

দুই লাখ টাকার জন্য বিনা চিকিৎসায় ধীরে ধীরে পঙ্গুত্বের পথে এগিয়ে যাচ্ছেন নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শামসুন্নাহার ওরফে সমেজান (৫৫)।

অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে বর্তমানে দুটি ক্রাচই হয়ে উঠেছে তার একমাত্র অবলম্বন। অথচ একটু সহযোগিতা পেলেই সুস্থ হয়ে আবারও মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন তিনি। অসুস্থ শামসুন্নাহার বনপাড়া পৌরসভার ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা।

জানা যায়, গত বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারী পৌরসভা থেকে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় কোমরে আঘাত পান তিনি। এরপর থেকে তিনি আর স্বাভাবিকভাবে হাঁটতে পারেন না। দুটি ক্রাচে ভর দিয়ে কোন রকমে চলাফেরা করেন তিনি। নিজের সাধ্যমত চিকিৎসা করিয়েছেন। এখন একটি অপারেশন করতে হবে। এজন্য স্বামী পরিত্যক্তা দরিদ্র এই জনপ্রতিনিধির প্রয়োজন তিন লাখ টাকা। এর মধ্যে মেয়র কেএম জাকির হোসেনের সহায়তায় এক লাখ টাকার ব্যবস্থা হলেও অবশিষ্ট দুই লাখ টাকা যোগাড় করতে পারছেন না তিনি। অথচ এ টাকার ব্যবস্থা হলে অপারেশনের মাধ্যমে নিশ্চিত পঙ্গুত্ববরণ থেকে মুক্তি মিলবে তার।

শুক্রবার সরেজমিনে বনপাড়া পৌরসভার দিয়ারপাড়ায় তার বাড়িতে গেলে তিনি জানান, প্রায় ২০ বছর আগে তিন সন্তানসহ স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তার। ৯ বছর আগে তার বড় ছেলে স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। মেজো ছেলে গার্মেন্টস কর্মী আর ছোট ছেলে রিক্সা ভ্যান চালিয়ে কোন রকমে তাদের ডালভাতের যোগান দিচ্ছেন। এ অবস্থায় পরিবার থেকে তার চিকিৎসার ব্যয় বহন করা অসাধ্য ব্যাপার।

এ সময় কাউন্সিলর শামসুন্নাহার কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন দ্রুত চিকিৎসা না করালে তাকে স্থায়ী পঙ্গুত্ব বরণ করতে হবে। কিন্তু তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে আবারও দলীয় কর্মকান্ডে অংশ নেয়াসহ আগের মত তার নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান। তাই অপারেশনের জন্য অবশিষ্ট দুই লাখ টাকা সহায়তা পেতে তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনা করেন।

আরপি/ এসআই



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top