রাজশাহী রবিবার, ২৫শে অক্টোবর ২০২০, ১০ই কার্তিক ১৪২৭


জয়পুরহাটে ৩ জনের লাশ উদ্ধার, মৃত্যুর রহস্য মেলেনি


প্রকাশিত:
১১ মার্চ ২০২০ ১৪:৩৩

আপডেট:
১১ মার্চ ২০২০ ১৪:৪৭

প্রতীকি ছবি

জয়পুরহাট শহরের আরাফাতনগর ও ট্রাক টার্মিনাল এলাকা এবং আক্কেলপুর উপজেলার ভিকনি এলাকার পৃথক স্থান থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার সকালে এমরান ও নীড় নামে কলেজ-স্কুলের দুই শিক্ষার্থী এবং মঙ্গলবার রাতে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির পরিচয় এখনও মেলেনি। এ ছাড়া এখন পর্যন্ত ওই তিনজনের মৃত্যুর প্রকৃতরহস্য উদ্ঘাটন হয়নি।

নিহত তাজনুবা নাভিলা চৌধুরী নীড় তুলা উন্নয়ন বোর্ডে কর্মরত আবদুস সামাদের মেয়ে। সে জয়পুরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ইমরান হোসেন জয়পুরহাট পৌর এলাকার মাদারগঞ্জ মৌজার ফরিদ উদ্দিনের ছেলে। তিনি শহরের জয়পুরহাট শহীদ জিয়া ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। এ ছাড়া আরেকজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বুধবার ভোরে আক্কেলপুর উপজেলার আক্কেলপুর-দুপচাঁচিয়া সড়কের ভিকনি ব্রিজ এলাকার সড়কের পাশে একটি খালে চল্লিশোর্ধ্ব অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন।

পুলিশ ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। অজ্ঞাত ব্যক্তির মুখে দাড়ি রয়েছে। তার পরনে লুঙ্গি ও চেকশার্ট ছিল।

তবে লুঙ্গিটি পাওয়া গেছে মৃতদেহের কিছু দূরে। এখনও তার পরিচয় মেলেনি। তবে স্থানীয়রা কেউই মরদেহ দেখে শনাক্ত করতে পারেননি।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, নিহত ওই অজ্ঞাত ব্যক্তি গরু ব্যবসায়ী। আক্কেলপুরের গোপিনাথপুর মেলা থেকে ফেরার পথে গরু বিক্রির টাকা ছিনিয়ে নেয়ার জন্য দুর্বৃত্তরা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে থাকতে পারে।

আক্কেলপুর থানার ওসি আবু ওবায়েদ জানান, অজ্ঞাত পরিচয় ওই ব্যক্তিকে কী কারণে হত্যা করা করা হয়েছে, তা সঠিক তথ্য তদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে।

অন্যদিকে মঙ্গলবার রাতে জয়পুরহাট শহরের আরাফাত নগরের ইয়ুথ প্লাজার ভাড়াটে বাসা থেকে স্কুলছাত্রী তাজনুবা নাভিলা চৌধুরী নীড়ের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনাটিকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করা হলেও তাৎক্ষণিকভাবে আত্মহত্যার (মৃত্যু) প্রকৃত কারণ জানা যায়নি।

তবে প্রেমঘটিত কারণে মা-বাবার ওপর অভিমান কিংবা পারিবারিক অন্য কোনো কারণে ওই ছাত্রীর এমন মৃত্যু ঘটতে পারে বলে ধারণা স্থানীয়দের।

এদিকে বুধবার সকাল ১০টার দিকে জয়পুরহাট ট্রাক ট্রার্মিনাল এলাকার একটি মাদকাসক্ত নিরাময়কেন্দ্রের ভেতর থেকে ইমরান হোসেন (১৭) নামে এক কলেজছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

তবে তার হাতে মঙ্গলবার রাতে শহরের আরাফাতনগরের ইয়ুথ প্লাজার বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করা ওই স্কুলছাত্রী তাজনুবা নাভিলা চৌধুরী নীড়ের নাম লেখা ছিল। তাই প্রেমের কারণ সৃষ্ট জটিলতা বা বিরোধে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে পুলিশ বলছে, ঘটনা দুটির তদন্ত ও নিহতদের মরদেহের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর এদের মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে।

 

 

আরপি/এসআর




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top