রাজশাহী শুক্রবার, ১৪ই জুন ২০২৪, ১লা আষাঢ় ১৪৩১


জয়পুরহাটে হত্যার দায়ে নারীসহ ৬ জনের যাবজ্জীবন


প্রকাশিত:
১৬ মার্চ ২০২৩ ২০:০৪

আপডেট:
১৪ জুন ২০২৪ ১৮:১০

ছবি: সংগৃহীত

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় এক নারীসহ ছয়জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা অতিরিক্ত দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন— জয়পুরহাট সদর উপজেলার ভাদসা ইউনিয়নের দেবরাইল গ্রামের আহাম্মদ আলীর ছেলে মোন্তাজ আলী (৪০), এন্তাজ আলী (৩৪), আলতাব হোসেন (৪৪), মৃত কোমেজ উদ্দিনের ছেলে আহাম্মদ আলী (৭০), আহাম্মদ আলীর স্ত্রী মিনা বেগম (৫৫) এবং মৃত আব্দুল সাত্তারের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৪৪)।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, ২০০৭ সালের ১১ এপ্রিল সকালে জয়পুরহাট সদর উপজেলার ভাদসা ইউনিয়নের দেবরাইল গ্রামের আকবর আলী বাড়িতে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে বসে সংসারের বিষয়ে আলাপ করছিলেন। এ সময় আসামিরা কোদাল, লোহার রড, শাবল, লাঠি ও ছোরা নিয়ে অতর্কিত হামলা করে। ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে আসামিরা দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় আজিজুল ইসলাম ও তার ভাই আব্দুর রশিদ এবং তাদের বাবা আকবর আলীকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

অবস্থার অবনতি হওয়ায় আব্দুর রশিদকে রাজশাহী মেডিকের কলেজ হাসপাতালে আর আকবর আলীকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে ২০০৭ সালের ৫ মে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আব্দুর রশিদ। এ ঘটনায় আকবর আলীর ছেলে মিজানুর রহমান মিঠু ওই বছরের ১১ এপ্রিল একটি হত্যা মামলা করেন। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছয়জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

জয়পুরহাট জজ কোর্টের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় দেন বিচারক।

 

আরপি/এসআর-০৪



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top