রাজশাহী শুক্রবার, ১৪ই জুন ২০২৪, ১লা আষাঢ় ১৪৩১


পাবনায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে স্কীল কম্পিটিশন অনুষ্ঠিত


প্রকাশিত:
১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৫:০৭

আপডেট:
১৪ জুন ২০২৪ ১৯:৩৮

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) পাবনায় স্কীল কম্পিটিশন ২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৪ মাস প্রশিক্ষণ শেষে গ্রাফিক্স ডিজাইন ট্রেডের ৩০ জন প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে ফাইনাল রাউন্ডে ৮ জন প্রতিযোগী অংশ গ্রহণ করে।

বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) সাড়ে ১০টায় এসইআইপি প্রজেক্টের অধীনে গ্রাফিক্স ডিজাইন ট্রেডের ৫ম ব্যাচের প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে এই স্কীল কম্পিটিশন হয়। 

পাবনা টিটিসির সেমিনার কক্ষে স্কীল কম্পিটিশনে প্রধান অতিথি ছিলেন অত্র প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ মো. মকছেদুল আলম। গ্রাফিক্স ডিজাইন ট্রেডের ট্রেড ইনচার্জ ও কম্পিউটার অপারেশন ট্রেডের সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর মো. নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কম্পিউটার অপারেশন ট্রেডের চীফ ইন্সট্রাক্টর ও একাডেমী ইনচার্জ অমল কুমার। স্কীল কম্পিটিশনে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন কম্পিউটার ট্রেডের সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর মো. নাছির উদ্দিন, অটোক্যাড ট্রেডের সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর কে এম এরশাদুস সালাম এবং গ্রাফিক্স ডিজাইন ট্রেডের ট্রেইনার মো. তৌফিক হোসেন খান।

আরও পড়ুন: পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে এশিয়া কাপ মিশন শুরু টাইগারদের

উক্ত স্কীল কম্পিটিশনে প্রথম স্থান অধিকার করেন মো. মুরাদ খান, ২য় স্থান অধিকার করেন রাবেয়া খাতুন এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মো. আনিছুল ইসলাম। এছাড়াও ক্লাসে শতভাগ উপস্থিতির পুরস্কার পান কৌশিক দাস। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে ক্রেস্ট প্রদান করেন প্রধান অতিথি অধ্যক্ষ মো. মকছেদুল আলম।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র দক্ষ জনশক্তি তৈরি করছে এবং বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে পাবনাসহ দেশের অর্থনীতিতে বিরাট ভুমিকা রাখছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন এই স্কীল কম্পিটিশন প্রশিক্ষনার্থীদের মাঝে প্রতিযোগিতর মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি করবে এবং সকলেই নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন করবে। বিশেষ অতিথি অমল কুমার বলেন, আগামিতে সকল ট্রেডে স্কীল কম্পিটিশনের মাধ্যেম বিজয়ী প্রশিক্ষণার্থীদের পুরস্কার প্রদান করা হবে যাতে সকলের মধ্যে উৎসাহ বৃদ্ধি পায়। এছাড়া তিনি আগামী ২৪ সালের জানুয়ারি মাসে জব ফেয়ার করার ঘোষণা প্রদান করেন।

সভাপতির বক্তব্যে মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, বতর্মানে বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। পাবনা টিটিসি থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা বেশির ভাগ প্রশিক্ষণার্থীরাই জব করছে অথবা ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে আত্ম কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছে।

তিনি ট্রেন্স-১ ব্যাচ-৬ এর প্রশিক্ষণার্থী সাদ্দাম হোসেনের উদাহরণ দিয়ে বলেন, সাদ্দাম বর্তমানে টপ রেটেড ফ্রিল্যান্সার এবং প্রতিমাসে প্রায় ৩ লাখ টাকা ইনকাম করছে। তিনি গ্রাফিক্স ডিজাইন ট্রেডের প্রশিক্ষণার্থীদের সাদ্দামের মতো ফ্রিল্যান্সার হওয়ার কথা বলেন। স্কীল কম্পিটিশনে অংশগ্রহনকারী প্রশিক্ষনার্থীরা এই ধরনের প্রতিযোগিতা মূলক অনুষ্ঠান করার জন্য পাবনা টিটিসি ও শিক্ষকদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ভবিষ্যতেও নিয়মিতভাবে এ ধরনের কম্পিটিশন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

 

 

আরপি/এসআর-২২


বিষয়: টিটিসি


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top