রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ই ফাল্গুন ১৪৩০


পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচন

নওয়াজ শরিফের চেয়ে এগিয়ে ইমরানপন্থী স্বতন্ত্র প্রার্থীরা


প্রকাশিত:
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:২১

আপডেট:
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:৩৪

ফাইল ছবি

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনের অনানুষ্ঠানিক ফল প্রকাশ করছে দেশটির গণমাধ্যমগুলো।, ফলাফলে এগিয়ে আছেন ইমরানপন্থী নেতারা। অন্যদিকে কোনো দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার (১৩৪টি আসন) দিকে এগোতে পারছে না। সেই হিসেবে জোট গঠন ছাড়া সরকার গঠন করতে পারবে না কোনো দল। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ২২০ আসনের প্রাথমিক ফলাফলেও ইমরান-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এগিয়ে রয়েছেন। দ্বিতীয় স্থানে আছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল। তারপরই রয়েছে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির দল।

 

পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া প্রাথমিক ফলাফলে দেখা যায়, ২২০ আসনের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৯০টি আসনে জয় পেয়েছেন। যার অধিকাংশই ইমরান-সমর্থিত প্রার্থী। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নওয়াজের দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) পেয়েছে ৬২ আসন, আর তৃতীয় স্থানে থাকা বিলাওয়ালের পাকিস্তান পিপলস পার্টি পেয়েছে ৫০টি আসন। এ ছাড়া মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট (এমকিউএম) ১১টি এবং ইসতিকাম-ই-পাকিস্তান পার্টি (আইপিপি), জমিয়ত ওলেমা-ই-ইসলাম পাকিস্তান (জেইউআই-পি) ও পিএমএল দুটি করে আসনে ফল পেয়েছে। একটি আসনে জিতেছে পাখতুনখাওয়া ন্যাশনাল আওয়ামি পার্টি পাকিস্তান (পিএনএপিএফ)।


এদিকে পাকিস্তান সংবাদমাধ্যম ডন অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই)-সমর্থিত প্রার্থী ৫৮ আসনে জিতেছেন। ডন ১৪৬ আসনের ফল দিয়ে জানিয়েছে ইমরানের দলের সমর্থিত প্রার্থীদের পরের অবস্থানে থাকা নওয়াজের দলের প্রার্থীরা ৪৩ আসনে জয় পেয়েছেন। আর তৃতীয় অবস্থানে থাকা বিলাওয়ালের দল ৩৪ আসনে জিতেছে। ১১টি আসনে জিতেছেন অন্য প্রার্থীরা।এদিকে পিটিআই নেতা ব্যারিস্টার গহর জিও নিউজকে বলেছেন, আমরা পিপিপি বা পিএমএল-এনের সঙ্গে যোগাযোগ করছি না। তাদের সঙ্গে জোট করার কোনো ইচ্ছা নেই পিটিআইয়ের।

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে কমপক্ষে ১৩৪টি আসনে জয় নিশ্চিত করতে হবে।

 

 

আরপি/যেডএফ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top