রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ৬ই অক্টোবর ২০২২, ২১শে আশ্বিন ১৪২৯


আগামী নির্বাচনে মোদি জিতবেন কিনা প্রশ্ন নিতিশের


প্রকাশিত:
১০ আগস্ট ২০২২ ১৮:১১

আপডেট:
৬ অক্টোবর ২০২২ ০৩:৪৩

ছবি: সংগৃহিত

আগামী নির্বাচনে মোদি জিতবেন কিনা প্রশ্ন নিতিশেরশপথের পর নিতিশ-তেজস্বী রেকর্ড গড়ে টানা অষ্টমবারের মতো বিহারের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন নিতিশ কুমার। একই সময়ে রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) তেজস্বী যাদব রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। এ শপথ গ্রহণের মাধ্যমে রাজ্যের শীর্ষপদের দায়িত্ব পাওয়ার পরই ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তার দল বিজেপির দিকে তীক্ষ্ণ আক্রমণাত্মক প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন নিতিশ। বিহারের এ বর্ষীয়ান রাজনীতিক বলেন, ‘২০১৪ সালের নির্বাচনে মোদি জিতেছেন ঠিক কথা। কিন্তু ২০২৪-এ তিনি জিতবেন কিনা?’

বিহারের রাজ্যপাল ফাগু চৌহানের কাছ থেকে শপথ নিয়েই সংবাদিকদের মুখোমুখি হন নিতিশ। সেখানে অবশ্যম্ভাবীভাবে তার দিকে ধেয়ে আসে এক প্রশ্ন, তিনি কি ২৪-এর ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কুর্সির দিকে এগোচ্ছেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে নিতিশ নিজেকে প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার বলে দাবি করেননি। এরপরেই তিনি ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করে বলেন, ‘আসল প্রশ্ন হলো, যিনি ২০১৪-সালে জিতে এসেছিলেন, তিনি ২০২৪-এও জিতবেন কিনা?’

এদিকে বিহারে রাতারাতি তাদের সরকার ভেঙে পড়ার পর নিতিশকে কাঠগড়ায় তুলে লাগাতার আক্রমণ করে যাচ্ছে বিজেপি। হিন্দুত্ববাদী এ দলটির দাবি, নিতিশের মহাগঠবন্ধন সরকার পুরো মেয়াদ টিকবে না। বিজেপির দাবি উড়িয়ে দিয়ে নিতিশ বলেন, ‘আমার সাবেক সঙ্গীরা সেখানে পৌঁছবে, যেখানে তারা ২০১৫-এর বিধানসভা ভোটে ছিল।’

বুধবার দুপুর ২টায় পটনার রাজভবনে শপথ নেন নিতিশ ও তেজস্বী। মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরা পরে শপথ নেবেন। বিভিন্ন সূত্রের খবর অনুসারে, ১৫ অগস্টের পর মন্ত্রিসভার বাকি সদস্যরা শপথ নেবেন। মন্ত্রিসভায় সবচেয়ে বেশি প্রতিনিধিত্ব থাকতে চলেছে আরজেডির। বিধানসভার স্পিকার পদটিও আরজেডির কাছে যাবে বলে জানা গেছে।

প্রত্যাশিতভাবেই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান বয়কট করেছে রাজ্যের প্রধানবিরোধী দল বিজেপি। শপথ অনুষ্ঠান শুরুর আগে অবশ্য বিহারের প্রবীণ বিজেপি নেতা সুশীল মোদি দাবি করেছিলেন, তাকে কেউ আমন্ত্রণ জানায়নি। দলও আমন্ত্রণপত্র পায়নি। এ দিনই সুশীল বলেন, ‘‘নীতীশ যা করলেন, তা প্রধানমন্ত্রী মোদি ও বিহারের জনগণের অপমান ছাড়া আর কিছুই নয়। মানুষ এনডিএকে ভোট দিয়েছিল। নিতিশ ওই বিশ্বাস ভাঙলেন।’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

আরপি/এসএইচ ০২



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top