রাজশাহী শুক্রবার, ২১শে জানুয়ারী ২০২২, ৮ই মাঘ ১৪২৮


এলিজাবেথকে সরিয়ে প্রজাতন্ত্র হলো বার্বাডোজ


প্রকাশিত:
৩০ নভেম্বর ২০২১ ১৬:৩২

আপডেট:
২১ জানুয়ারী ২০২২ ০১:৩৪

ফাইল ছবি

রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথকে রাষ্ট্রীয় প্রধানের পদ থেকে সরিয়ে বিশ্বের নতুন প্রজাতন্ত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে বার্বাডোজ।

ইংরেজদের প্রথম একটি জাহাজ এই দ্বীপে পৌঁছানোর পর ব্রিটেনের সঙ্গে প্রায় ৪০০ বছরের যে উপনিবেশিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল মঙ্গলবার মধ্যরাতে ব্যাপক উল্লাস আর উদযাপনের মধ্য দিয়ে সেই সম্পর্কের অবসান ঘটাল বার্বাডোজ।

আর এর মাধ্যমে ক্যারিবীয় এই দ্বীপ আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বের নবীনতম প্রজাতন্ত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে।

রয়টার্স লিখেছে, মঙ্গলবার মধ্যরাতে রাজধানী ব্রিজটাউনের চেম্বারলেইন সেতুতে সারিবদ্ধ শত শত মানুষের উল্লাসের মধ্য দিয়ে নতুন প্রজাতন্ত্রের সূচনা হয়েছে বার্বাডোজে। ব্যাপক জনাকীর্ণ হিরোজ স্কয়ারে জাতীয় সংগীতের তালে বন্দুকের ২১টি গুলি ছুড়ে বার্বাডোজের আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

বার্বাডোজের সেই অনুষ্ঠানে রানি এলিজাবেথের রাজকীয় পদমর্যাদা হ্রাস এবং নতুন বার্বাডোজ ঘোষণার সময় ব্রিটিশ রাজপরিবারের উত্তরাধিকারি প্রিন্স চার্লস নীরবে দাঁড়িয়ে ছিলেন। বার্বাডোজের এই পদক্ষেপ ব্রিটেনের সাবেক অন্যান্য উপনিবেশগুলোতে সার্বভৌমত্বের নতুন আলোচনা উসকে দিতে পারে।

বার্বাডোজের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আমরা একজন নারীকে সর্বসম্মতভাবে দেশের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেছি। বর্তমানে তার চেয়ে যোগ্যতম কোনো প্রার্থী পাওয়া যায়নি।

ওই দ্বীপ ভূখণ্ডের প্রথম প্রেসিডেন্ট সান্দ্রা ম্যাসন বলেছেন, আমাদের জনগণকে অবশ্যই প্রজাতান্ত্রিক বার্বাডোজে আত্মা এবং তার উপাদান দিতে হবে। আমরা অবশ্যই এর ভবিষ্যৎ ঠিক করবো। আমরা একে অন্যের জন্য এবং অন্যান্য দেশও। আমরা এখন বার্বাডোজের জনগণ।

বার্বাডোজসহ যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা এবং জ্যামাইকার মতো অন্যান্য ১৫টি দেশ ও অঞ্চলের রাষ্ট্রীয় প্রধান হিসেবে আছেন ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ব্রিটেনের সাথে উপনিবেশিক ইতিহাসের সম্পর্ক ছিন্নের আনুষ্ঠানিক এই ঘটনা অন্যান্য দেশের জন্যও পথ তৈরি করতে পারে।

মায়ের পক্ষ থেকে উষ্ণ অভিনন্দন বার্তা নিয়ে বার্বাডোজে হাজির হওয়া প্রিন্স চার্লস বলেছেন, ‘এই প্রজাতন্ত্রের সৃষ্টির মাধ্যমে এক নতুনের সূচনা হলো।

‘আমাদের অতীতের অন্ধকারাচ্ছন্ন দিনগুলো এবং দাসত্বের ভয়াবহ নৃশংসতা; যা আমাদের ইতিহাসে চিরকাল কলঙ্কিত করে; এই দ্বীপের বাসিন্দারা সেই কলঙ্ক মুছে অসাধারণ দৃঢ়তার সাথে তাদের পথ তৈরি করেছেন।’

১৯৯২ সালে রানি এলিজাবেথকে রাষ্ট্রপ্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেয় আরেক সাবেক উপনিবেশ মরিশাস। সেই সময় তারা নিজেদের প্রজাতন্ত্র হিসাবে ঘোষণা করে।

ডয়েচ এভেলে জানিয়েছে, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের বার্বাডোজ এখন বিশ্বের নবীনতম প্রজাতন্ত্র। সোমবার মধ্যরাতের পর থেকে রানী এলিজাবেথ আর সেখানকার রাষ্ট্রপ্রধান নন। সরে গেল ব্রিটেনের রাজকীয় পতাকাও। দেশটির ৫৫তম স্বাধীনতা দিবসে উঠল তাদের নিজস্ব পতাকা। রাজপরিবারের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গেছেন প্রিন্স চার্লস।

বার্বাডোজের প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডেম স্যান্ড্রা মেসন। তিনি এর আগে বার্বাডোজের গভর্নর জেনারেল ছিলেন। তিনি সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও বিচারপতি এবং চারটি দেশের রাষ্ট্রদূত হিসাবেও কাজ করেছেন।

বার্বাডোজের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, ''আমরা একজন নারীকে সর্বসম্মতভাবে দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করেছি। এ মুহূর্তে তার থেকে যোগ্য কোনো প্রার্থী পাওয়া সম্ভব নয়।''

প্রায় চারশ বছর আগে ব্রিটিশ জাহাজ প্রথমে বার্বাডোজ পৌঁছায়। তারপর ব্রিটিশরা বার্বাডোজকে সুগার কলোনিতে পরিণত করে। আফ্রিকা থেকে মানুষকে জোর করে ধরে সেখানে নিয়ে যাওয়া হয় চাষ করার জন্য। এখন দেশের অধিকাংশ মানুষেরই মূল আফ্রিকায়। 

একসময় বার্বাডোজকে 'লিটল ইংল্যান্ড' বলা হতো। দীর্ঘদিন ধরে এখানে বিতর্ক চলছিল, ব্রিজটাউনে ন্যাশনাল হিরোস স্কোয়ারে ব্রিটিশ অ্যাডমিরালের মূর্তি রাখা হবে না সরিয়ে দেয়া হবে, তা নিয়ে। দুইশ বছর ধরে মূর্তিটি সেখানে আছে।

সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স, ডয়েচ এভেলে।

 

আরপি/ এমএএইচ-১৪



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top