রাজশাহী রবিবার, ২৭শে নভেম্বর ২০২২, ১৩ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯


যাত্রীবেশে বাসে ডাকাতি করাই তাদের পেশা


প্রকাশিত:
১৯ অক্টোবর ২০২২ ১৮:৪৭

আপডেট:
২৭ নভেম্বর ২০২২ ০৩:৫০

ফাইল ছবি

সিরাজগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস ডাকাতি ঘটনার সঙ্গে জড়িত আন্তঃজেলার ডাকাত দলের ছয় সদস্যকে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে লুন্ঠিত মালামাল ও ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার করেছে।

বুধবার (১৯ অক্টোবর) বুধবার দুপুরে পুলিশ সুপারের হল রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. আরিফুর রহমান মন্ডল, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) বলেন, গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার দিকে ন্যাশনাল ট্রাভেলসের একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকার মহাখালী থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার উদ্দেশ্যে রওনা করেন। পথিমধ্যে বাইপাইল হতে ৬ জন যাত্রী (টিকিট ছাড়া) জনপ্রতি আড়াই শত টাকায় হাটিকুমরুল গোলচত্বরে যাওয়ার জন্য বাসে উঠে।

বাসটি বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পরপরই যাত্রীবেশী অজ্ঞাতনামা ৬ জন বাসের চালককে ছুরিকাঘাত করে বাসটি তাদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। হেলপার, সুপারভাইজার ও বাসের যাত্রীদের মারপিট ও হত্যার হুমকি দিয়ে তাদেরকে জিম্মি করে। পরে ডাকাতরা বাসে থাকা যাত্রীদের কাছ থেকে ১৭টি মোবাইল ফোন ও নগদ ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এরপর ওই ডাকাতরা বাসটি প্রথমে বগুড়ার দিকে যায় এবং সলঙ্গা থানাধীন ঘোরকা এলাকা থেকে ইউটার্ন করে সিরাজগঞ্জ রোডের দিকে চলে আসে। হাটিকুমরুল গোলচত্বরে হাইওয়ে পুলিশের একটি দল বাসটিকে থামানোর চেষ্টা করলে ডাকাতরা পুলিশের ব্যারিকেড উপেক্ষা করে দ্রুতগতিতে গাড়ি চালিয়ে পাবনা জেলার পথে রওনা হয়।

১ অক্টোবর দিনগত রাত ৩টার সময় বাসটি উল্লাপাড়া মডেল থানাধীন উল্লাপাড়া রেলগেইটের কাছাকাছি পৌঁছালে ট্রেনের সিগনাল পড়ায় রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। ডাকাতরা সেখানে বাসটি রেখে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় উল্লাপাড়া মডেল থানায় গত ৩ অক্টোবরে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে একটি ডাকাতি মামলা রুজু হয়।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, চাঞ্চল্যকর এই বাস ডাকাতির ঘটনাটি দেশব্যাপী আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। ডাকাতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্তপূর্বক মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় ও দৌলতপুর থানা এলাকা, ঢাকার সাভার ও আশুলিয়া থানা এলাকায় নিদ্রাহীন, বিরামহীন ও নিরবিচ্ছিন্ন অভিযান পরিচালনা করে ঘটনার সঙ্গে জড়িত আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৬ সদস্যকে ১৮ অক্টোবর গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্যরা হলেন—মানিকগঞ্জের মো. আলমগীর শেখ (৩২), মো. শরিফ মোল্লা (২৩), মো. জাহিদ মোল্লা (৪০), মো. সাইফুল ইসলাম (২২), ফরিদপুরের মো. সাদেক মাতব্বর, সানি (৩০) ও ঢাকার মো. রাজিব হোসেন (২৩)।

গ্রেফতার ডাকাতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। দেশের বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসে ডাকাতি করাই তাদের পেশা।

গ্রেফতার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সার্বিক আইনানুগ প্রস্তুতি শেষে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান।

আরপি/ এসএইচ ১০

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top