রাজশাহী রবিবার, ৯ই আগস্ট ২০২০, ২৬শে শ্রাবণ ১৪২৭


স্বপ্নফেরি’র নতুন পোষাকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ঈদ


প্রকাশিত:
২০ মে ২০২০ ০৩:০৭

আপডেট:
২০ মে ২০২০ ১৮:৩৬

স্বপ্নফেরি’র সভাপতি খাইরুল ইসলাম দুখুর সাথে নতুন পোষাকে হাস্যজ্জ্বোল শিশু

পবিত্র রমজানের শেষ দশক চলছে। রমজানের শেষ দিনে আকাশে উঠবে শাওয়ালের চাঁদ বা আনন্দের চাঁদ। কিন্তু বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারীর কারনে ঈদ কতটুকু আনন্দ বয়ে আনবে তা নিয়ে যথেষ্ট শঙ্কা রয়েছে।

ঈদের আনন্দ বাড়িয়ে দেয় নতুন পোষাক। তাইতো ঈদে ধনী-গরীব নির্বিশেষে পরিবারের সদস্যদের জন্য নতুন পোষাক কেনার চেষ্টা করেন। বড়দের জন্য সম্ভব না হলেও বাচ্চাদের পোষাক কেনার আপ্রাণ চেষ্টা থাকে অভিভাবকদের। কিন্তু চলমান করোনা দুর্যোগে অধিকাংশ মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্ত ও অসহায় মানুষদের জন্য সেটা হয়তো সম্ভব হবে না।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সামর্থ্যহীন পরিবারের ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য অনন্য উদ্যোগ নিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কিছু উদ্যোমী শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত সমাজসেবামূলক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘স্বপ্নফেরি’। এই ঈদে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে নতুন পোশাক ও দুস্থদের মাঝে ঈদ উপহার হিসেবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে সংগঠনটি।

প্রাথমিক পর্যায়ে তিনটি জেলায় ঈদ উপহার বিতরণে কাজ করছে স্বপ্নফেরি। ধারাবাহিক এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার (১৯ মে) সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া স্টেশন এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে নতুন পোশাক বিতরণ করা হয়েছে।

জানতে চাইলে স্বপ্নফেরি’র রাবি শাখার সহ-সভাপতি ও সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি শরীফ ইবনে আহমদ গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা সমাজের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী যদি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি না করি, তাহলে তারা অবহেলিত থাকবে। এটা তাদের অধিকার। তাই আমাদের দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে স্বপ্নফেরি’র উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়েছে।

স্বপ্নফেরি’র প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি খাইরুল ইসলাম দুখু বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই উদ্যোমী তরুণদের সহযোগিতায় মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছে স্বপ্নফেরি। করোনা দুর্যোগে বিভিন্ন সময়ে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ঈদের পোষাক ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও দুস্থদের ঈদ আনন্দে সামিল হওয়ার চেষ্টা করেছি আমরা।

বিভিন্ন সময় স্বপ্নফেরি’র উদ্যোগ দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

দুখু আরও বলেন, এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে এবং মানুষের সেবায় জন্য কাজ করার মাধ্যমে দেশব্যাপী স্বপ্নফেরি’র বিস্তার ঘটবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

সংগঠনের উপদেষ্টা ও রাজশাহীর শহীদ বুদ্ধিজীবী সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ইনার উদ্দিন বলেন, স্বপ্নফেরি একটি পরিচ্ছন্ন স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। সমাজের ছিন্নমূল, অসহায় ও দুস্থ শিশুদের এ হাসি করোনাকালে মানসিক প্রশান্তি এনে দিচ্ছে। স্বপ্নফেরি'র কাজ অব্যাহত থাকবে, এটাই প্রত্যাশা। এ সংগঠনের সভাপতিসহ সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য আমার শুভকামনা!

আরপি/ এএন




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top