রাজশাহী বুধবার, ১লা ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৮


চুলের অকাল পক্কতা রোধে করণীয়


প্রকাশিত:
২২ নভেম্বর ২০২১ ০৯:৫৫

আপডেট:
১ ডিসেম্বর ২০২১ ০২:৪১

ফাইল ছবি

আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে চুল আঁচাড়ানোর সময় হঠাৎ একটা পাকা চুল চোখে পড়লো। ব্যস, অমনি কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ে গেল।

তাহলে কী বয়স হয়ে গেল আপনার? না, এটা ভুল ধারণা। শুধু বয়স হলেই যে চুলে পাক ধরে তা কিন্তু নয়। চিন্তা, ভুল ডায়েট, হরমোনের প্রভাব, এমনকি প্রাকৃতিক কারণে অকালে চুল পেকে যেতে পারে। কিন্তু রকম অকালে চুল পেকে গেলে তখন কী করবেন জানেন? পাকা চুলকে কাঁচা করতে বাজারে অনেক প্রোডাক্ট বিক্রি হয়। কিন্তু এ ধরনের বাজার চলতি প্রোডাক্ট ব্যবহার না করে যাতে অকালে চুল না পাকে তার ব্যবস্থা করাই ভালো। এজন্য ঘরোয়া জিনিস ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভালো। চলুন জেনে নিই চুল পাকা রোধে কী কী করবেন?

নিয়মিত গাজর খান

গাজরের রসের সঙ্গে পানি ও চিনি ভালো করে মিশিয়ে নিন। এভাবে এই মিশ্রণ বানিয়ে নিয়মিত খান। দ্রুত উপকার পাবেন।

পেঁয়াজের রস

পেঁয়াজ বাটা চুলের অকালে পেকে যাওয়া ঠেকাতে অত্যন্ত কার্যকরী উপাদান। পেঁয়াজ বেটে প্রতিদিন চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ক’দিনের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

বাদামের তেল

বাদাম তেলের সঙ্গে তিলের বীজ গুঁড়া করে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ভালোভাবে মেখে ২০-৩০ মিনিট রেখে দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত তিন দিন এই মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারলে দ্রুত উপকার পাবেন।

আমলকি

আমলকির গুঁড়ার সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট চুলের গোড়ায় লাগাবেন। এরপর ভালোভাবে পরিষ্কার করুন। পাকা চুলের সমস্যায় দ্রুত উপকার পাবেন।

লেবুর রস

পাকা চুলের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে হলে প্রতিদিন নারিকেল তেলের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে চুলের গোড়ায় মাখুন। সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

আলুর রস

আলুতে জাদুকরী সৌন্দর্যবর্ধক উপাদান আছে যা ত্বক ও চুলের জন্য উপকারী। আলু রস ও একটি ডিমের কুসুম ও ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন আলুর রসের সঙ্গে। মিশ্রণটি চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগিয়ে রাখুন। ৪০ মিনিট পর ভেষজ শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন।

 

 

 

আরপি/এসআর-০৫



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top