রাজশাহী বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ই ফাল্গুন ১৪৩০


চলতি মাসেই এনটিআরসিএ শিক্ষক নিবন্ধনের ভাইবা


প্রকাশিত:
৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৫:৪৮

আপডেট:
৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৫:৪৮

ফাইল ছবি

১৭তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার ফল গত ৩০ আগস্ট প্রকাশ করা হয়। এতে উত্তীর্ণ ২৬ হাজার ২৪২ প্রার্থী এখন মৌখিক পরীক্ষার অপেক্ষায়। তাদের এ অপেক্ষা দীর্ঘায়িত করতে চায় না বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যায়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে মৌখিক পরীক্ষা শুরু জন্য জোরেশোরে প্রস্তুতি নিচ্ছে সংস্থাটি। ২৪ বা ২৫ সেপ্টেম্বর মৌখিক পরীক্ষা শুরু করতে চান এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান এনামুল কাদের খান। শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব বলেন।

আরও পড়ুন: সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে একাধিক পদে চাকরির বিজ্ঞপ্তি

এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান বলেন, বোর্ড গঠনের কাজ এগিয়েছে। পরীক্ষার সেন্টারও প্রায় ঠিক। আমাদের প্রস্তুতি ভালো। আমি তো বলেছি- এ মাসের শেষ সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস ২৪ সেপ্টেম্বর অথবা পরদিন (২৫ সেপ্টেম্বর) মৌখিক পরীক্ষা শুরু করবো আমরা। যদি বড় কোনো সমস্যা না হয়, তাহলে ওই তারিখেই (২৪-২৫ সেপ্টেম্বর) ভাইভা শুরু করা যাবে।

এনটিআরসিএ সূত্র জানায়, সেপ্টেম্বরের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করে ডিসেম্বরে তারা শিক্ষক নিবন্ধনের চূড়ান্ত সুপারিশ করতে চান। এখন পর্যন্ত সব ঠিক আছে। বড় কোনো জটিলতা না হলে ডিসেম্বরে চূড়ান্ত সুপারিশ করা হবে।

সূত্রটি আরও জানায়, ডিসেম্বরে এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান এনামুল কাদের খান অবসরে যাবেন। চেয়ারম্যানের অবসরের আগেই ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধনের কার্যক্রম শেষ করতে চায় সংস্থাটি। এজন্য দ্রুত সময়ের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শুরুর তোড়জোড় চলছে, যা হবু শিক্ষকদের জন্য ইতিবাচক বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

২০২০ সালের জানুয়ারিতে ১৭তম নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। অর্থাৎ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের প্রায় চার বছরেও নিয়োগ সম্পন্ন করতে পারেনি এনটিআরসিএ। এ নিয়ে প্রার্থীদের চরম ক্ষোভ-হতাশা। তাদের অভিযোগ- এনটিআরসিএ চাইলে এক বছরের মধ্যেই এ প্রক্রিয়া শেষ করতে পারে।

অন্যদিকে এনটিআরসিএ কর্মকর্তাদের দাবি, সরকারের কৌশল ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরামর্শে অনেক সময় নিয়োগ প্রক্রিয়া দীর্ঘ করতে বাধ্য হন তারা। এখানে তাদের কোনো গাফিলতি নেই।

আরও পড়ুন: মৎস্য অধিদপ্তরের ৩২ পদে ৭৩২ জনের চাকরির সুযোগ

জানা গেছে, ২০২২ সালের ৩০ ও ৩১ ডিসেম্বর ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এক লাখ ৫১ হাজার প্রার্থী উত্তীর্ণ হন। চলতি বছরের ৫ ও ৬ মে শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষা হয়। এতে অংশ নেন মোট এক লাখ চার হাজারের বেশি প্রার্থী।

 

 

আরপি/এসআর-২৩



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top