রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল ২০২৪, ১২ই বৈশাখ ১৪৩১


ইফতারে পচা বেগুনি, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ


প্রকাশিত:
১৮ মার্চ ২০২৪ ০৪:৩৯

আপডেট:
২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০০:৫৫

ছবি: সংগৃহীত

ইফতারে ‘পচা বেগুনি’ পরিবেশনকে কেন্দ্র করে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় হোটেল ব্যবসায়ীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। রোববার (১৭ মার্চ) দিনগত রাত ১১টায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় গেট সংলগ্ন ‘হোটেল সারেং’ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে পচা বেগুনি পরিবেশন করা হয়। এরপর বেগুনিটির মান ভালো নয়- এমন অভিযোগ জানাতে গেলে হোটেল মালিকসহ কর্মচারীরা ওই শিক্ষার্থীর প্রতি ক্ষিপ্ত হন। এসময় তাদের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। পরে এ ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও ত্রিশালের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়।

রাত সাড়ে ১০টায় অভিযোগকারী শিক্ষার্থীদের আটকায় হোটেল কর্তৃপক্ষ। এসময় তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এসময় তাদের বাঁচাতে সহপাঠী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা এগিয়ে এলে তাদের ওপরও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় হোটেলের স্টাফ ও স্থানীয়রা। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীরাও সারেং হোটেলে হামলা চালায় ও ভাঙচুর করেন। দফায় দফায় এ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিভিন্ন মেস ও মেয়েদের বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলেও ইট পাটকেল নিক্ষেপ করা হয় বলে জানা গেছে। এসময় হলের বেশকিছু জানালার কাঁচ ভেঙে গেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ১২ শিক্ষার্থী আহত হন।

সংঘর্ষ চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, ত্রিশাল থানা পুলিশ ও অন্য শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় গেট সংলগ্ন এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এ বিষয়ে প্রক্টর সঞ্জয় কুমার মুখার্জি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসেছে, পরিবেশও শান্ত৷ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও প্রক্টরিয়াল বডি তৎপর রয়েছে।

ত্রিশাল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার অরিত সরকার বলেন, খাবারের মান নিয়ে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সংঘর্ষের সূচনা হয়। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

 

 

আরপি/এসআর



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top