রাজশাহী সোমবার, ৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫শে মাঘ ১৪২৯


শহীদ কামরুজ্জামান কলেজের অধ্যক্ষকে সংবর্ধনা দিলো রাজশাহী কলেজ


প্রকাশিত:
১৯ জানুয়ারী ২০২৩ ০২:৪৬

আপডেট:
৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২১:০৮

শহীদ কামরুজ্জামান কলেজের অধ্যক্ষকে সংবর্ধনা দিলো রাজশাহী কলেজ

রাজশাহী কলেজের ইতিহাস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মোঃ ইলিয়াস ইউদ্দিনের পদোন্নতি পেয়ে শহীদ এএইচএম কামরুজ্জামান সরকারি কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন। এতে বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে রাজশাহী কলেজ ।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) বেলা ১১ টায় রাজশাহী কলেজের প্রথম বিজ্ঞান ভবনের ২০২ নাম্বার কক্ষে এক আলোচনা সভায় তাকে এই সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

ইতিহাস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মোহাঃ শাহ তৈয়বুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর মহাঃ আব্দুল খালেক।

তিনি বলেন, কোনো পদ ফাঁকা থাকেন সব সময় অন্য কারো মাধ্যমে পূর্ণ হয়। কিন্তু ইলিয়াসের মতো কাজে নিষ্ঠাবান মানুষটাকে রাজশাহী কলেজ হারাচ্ছে। তিনি অতিকম কথা বলেন কিন্তু কাজ বেশি করেন। রাজশাহী কলেজের বিভিন্ন কর্মকান্ড তার হাত দিয়ে পরিচালনা হতো। তিনি খুবই সৎ একজন মানুষ। কোনোদিন তাকে দায়িত্ব দিয়ে চিন্তা করতে হয়নি। এমন একটা মানুষকে কলেজ  হারালো। কিন্তু এই বিচ্ছেদ আনন্দের।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন, কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাঃ ওলিউর রহমান, ইতিহাস বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ও রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর তানভিরুল আলম, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক প্রফেসর আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক  আবুল হাসানাৎ মোঃ রফিকুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক  মোঃ আনিসুজ্জামান, সহকারী অধ্যাপক রতন উদ্দিন, সহয়কারী অধ্যাপক আবুল বাসার প্রমুখ।

 

প্রফেসর তানভিরুল আলম বলেন, তিনি কথার চেয়ে কাজে বিশ্বাসী, দায়িত্বের উপর শ্রদ্ধাশীল। শিক্ষার্থী বান্ধব একজন শিক্ষক ছিলেন। কলেজের সেবায় দিন রাত পরিশ্রম করে গেছেন।  রাজশাহী কলেজে যোগদানের পর থেকে ইলিয়াস উপর অর্পিত দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালনের সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন সব সময়।

 

এসময় বিদায় অনুষ্ঠানে অনুভূতি ব্যক্ত করেন প্রফেসর ডঃ মোঃ ইলিয়াস উদ্দিন। তিনি বলেন, রাজশাহী কলেজে আমার স্মৃতি অনেক শিক্ষক শিক্ষার্থী খুবই আন্তরিক। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন পড়াশোনার পাশাপাশি রাজশাহী কলেজের সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের ভূমিকা রাখতে হবে। এতে শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top