রাজশাহী শুক্রবার, ৩০শে অক্টোবর ২০২০, ১৫ই কার্তিক ১৪২৭

রাজশাহীতে জাল কাগজে বিয়ে করে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ!


প্রকাশিত:
১৫ অক্টোবর ২০২০ ১৬:০২

আপডেট:
১৫ অক্টোবর ২০২০ ১৬:১০

প্রতীকী ছবি

রাজশাহী নগরীতে জাল কাগজে বিয়ে করে ধর্ষণ ও শারীরিক সম্পর্কের আপত্তিকর দৃশ্য ধারণ করে বরেন্দ্র কলেজের একাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রীর অভিযোগ পেয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট অভিযান চালিয়ে ওই যুবককে আটক ও আপত্তিকর ছবিগুলো উদ্ধার করে।

আটককৃত যুবকের নাম সানি আহমেদ। তিনি নগরীর শালবাগান এলাকার আলমগীর হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, ইন্টারমিডিয়েট পড়ুয়া ওই কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে সানির প্রেমের সম্পর্ক হলে তারা বিয়ে করেন। এরপর সানি ওই ছাত্রীকে বউ পরিচয়ে কক্সবাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে নিয়ে গিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন। সেসব অন্তরঙ্গ দৃশ্য তিনি মুঠোফোনে ধারণ করেন। তবে সানির আগের বিবাহিতা আরেকজন স্ত্রী রয়েছে বলে পরবর্তীতে ওই কলেজ ছাত্রী জানতে পারে।

ভুক্তভোগী ওই কলেজ ছাত্রী জানায়, এসব বিষয় জানার পর সে নিজের বিয়ের কাগজপত্রের খোঁজ নিতে যায়। এরপর সে জানতে পারে তাদের বিয়ের কাগজটিও জাল। ভুয়া কাজী সাজিয়ে জাল কাগজে বিয়ে করেন সানি। তবে এসব জানার পর সে সানির নিকট থেকে সরে আসার চেষ্টা করলে পূর্বে যৌন সম্পর্কের ধারণকৃত আপত্তিকর ছবিগুলো ফেসবুকে ছেড়ে দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেন।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) সাইবার ক্রাইম ইউনিটের প্রধান এএসপি উৎপল কুমার বলেন, গত ২৮ সেপ্টেম্বর নগরীর বোয়ালিয়া থানায় ওই কলেজ ছাত্রী অভিযোগ দেয়। এরপর সেটি সাধারণ ডায়েরি হিসেবে রেকর্ড করে তদন্ত করা হয়।

আরএমপির মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, মেয়েটির অভিযোগ পাওয়ার পর মহানগর পুলিশের নবগঠিত সাইবার ক্রাইম ইউনিট বিষয়টি নিয়ে কাজ করে এবং মেয়েটির সঙ্গে ঘটে যাওয়া ভয়ঙ্কর সব অপরাধের চিত্র উদঘাটন করে। পরে অভিযুক্ত ওই যুবককে আইনের আওতায় আনা হয়।

 

আরপি/আআ




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top