রাজশাহী মঙ্গলবার, ১৮ই জুন ২০২৪, ৫ই আষাঢ় ১৪৩১

বাঘায় পদ্মার চরাঞ্চলে এবার ভাঙনের মুখে কমিউনিটি ক্লিনিক


প্রকাশিত:
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০২:২৪

আপডেট:
১৮ জুন ২০২৪ ১১:৫৮

ভাঙনের মুখে কমিউনিটি ক্লিনিক। ছবি: প্রতিনিধি

রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে কালিদাসখালী কমিউনিটি ক্লিনিক। ভাঙন থেকে মাত্র ৩০ মিটার দুরে অবস্থান করছে কমিউনিটি ক্লিনিকটি। যেকোন সময় পদ্মা গর্ভে বিলিন হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

জানা যায়, আওয়ামীলীগ সরকারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি ১৯৯৮ সালে স্বাস্থ্য সেবার লক্ষে পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের কালিদাসখালী চরে কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ করেন। ২০১১ সাল থেকে এই ক্লিনিকে সহকারী মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট দিয়ে সপ্তাহে এক দিন চিকিৎসা দেয়া হতো। কিন্তু পদ্মার ভাঙনে চরের মানুষের আশ্রয়স্থলের পাশাপাশি চিকিৎসা সেবাটিও কেড়ে নিতে চলেছে পদ্মা।

শুধু এই কমিউনিটি ক্লিনিক নয়, পদ্মার ভাঙনে এবার আলো ছড়ানো দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়- চরকালিদাসখালী ও লক্ষীনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও পদ্মা গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। এছাড়াও পদ্মার ভাঙনে গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে দুই শতাধিক বাড়ি, মসজিদ, হাজার হাজার বিঘা জমি।

চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুল আযম বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকটি প্রতিষ্টার পর থেকেই প্রত্যন্ত চরাঞ্চলের মানুষ চিকিৎসাসহ নানাবিধ সুবিধা পেয়ে আসছে। অপচিকিৎসার হাত থেকেও রক্ষা পচ্ছে। কিন্তু সেটাও হুমকির মুখে পড়েছে। এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে সরেজমিনে কথা হলে, কালিদাসখালী চরের বুলু বেওয়া (৬৮) নামের একজন বলেন, জরুরি চিকিৎসা ছাড়া এখানেই সাধারন বোগের চিকিৎসা মিলছে। তিনি বুকে ব্যাথা, সর্দী, কাশি,জ্বরের চিকিৎসা এই কমিউনিটি ক্লিনিকে করিয়েছেন। লক্ষীনগর চরের আজগর হোসেন (৬৫) বলেন, গত কয়েক দিন যাবত হাঁপানি ও শ্বাস কষ্টে ভুগছিলাম। তার এই চিকিৎসার জন্য পদ্মার চর থেকে ১৫ কিলোমিটার পথ পার হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাওয়া লাগেনি। এখানেই টিকিৎসা নিয়ে ভাল আছেন।

চকরাজাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিক চালু হওয়ার ফলে ঝাড় ফোক তাবিজ কবিরাজি অপচিকিৎসা অনেকটাই বন্ধ হয়ে গেছে পদ্মার চরাঞ্চলে। বর্তমানে মানুষ বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে আধুনিক চিকিৎসার সুযোগ পাচ্ছে। অবহেলিত পদ্মার চরের মানুষের স্বাস্থ্য সেবার মানও বাড়ছে। তারা সেবা পাচ্ছে। কিন্তু পদ্মা গর্ভে সেটাও বর্তমানে হুমকির মুখে পড়েছে।

বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আকতারুজজামান বলেন, দীর্ঘদিন থেকে অবহেলতি পদ্মার চরে কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে কাজ করছে। কিন্তু পদ্মার ভাঙনে কমিউনিটি ক্লিনিকটি হুমকির মধ্যে পড়েছে। এ বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে অবগত করা হয়েছে।

 

আরপি/আআ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top