রাজশাহী সোমবার, ২০শে মে ২০২৪, ৭ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রাজশাহীর পদ্মায় সাঁতার শিখতে নেমে দুইজনের মৃত্যু


প্রকাশিত:
২১ এপ্রিল ২০২৪ ১৭:২৮

আপডেট:
২১ এপ্রিল ২০২৪ ১৭:২৯

রাজশাহী পোস্ট

রাজশাহীর পদ্মা নদীতে সাঁতার শিখতে নেমে পানিতে ডুবে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার দুপুর ১টার দিকে পবা উপজেলার হরিপুর আইবাঁধে তারা নিখোঁজ হয়। পরে দুপুর পৌনে ৩টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরির দল তাদের মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহতরা হলেন- রাজশাহী নগরীর সায়েরগাছা এলাকার বাবু হোসেনের ছেলে বাপ্পি হোসেন (১৬)। তিনি এ বছর রাজশাহী কোর্ট একাডেমি স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থী। অপর নিহত হলেন মনির হোসেন (২০)। তিনি একই এলাকার শাহিন হোসেনের ছেলে। মনির পেশায় থাই মিস্ত্রি।

নিহদের চাচাতো ভাই আল আমিন বলেন, যেখানে তারা পানিতে ডুবেছে সেখানে স্রোত ছিল না। বাড়িতে বলে এসেছে তারা নদীতে সাঁতার শিখতে যাবে। তারমধ্যে বাপ্পি সাঁতার জানে না। তাই তাকে মনির সাঁতার শেখানোর জন্য পদ্মা নদীতে নিয়ে আসেন। নদীতে নেমে সাঁতারের এক পর্যায়ে তারা কোনোভাবে নদীতে ডুবে যায়। বিষয়টি জানাজানি হলে রাজশাহী ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়া হয়। ফায়ার সার্ভিসের ডুবিরীরা এসে অভিযান চালিয়ে প্রথমে বাপ্পি ও পরে মনিরের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা মরদেহ দুটি বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

এ বিষয়ে রাজশাহী সদর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আবু সামা বলেন, মরদেহ উদ্ধারের পরে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই দুইজনের মৃত্যুসহ গত ছয় দিনের ব্যবধানে পদ্মা নদীতে ডুবে পাঁচজনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া দুইজন এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তাদের মধ্যে গত শনিবার (২০ এপ্রিল) রাজশাহীর সীমান্তবর্তী উপজেলা বাঘায় ডিঙি নৌকা ডুবে আসাদ হোসেন নামে এক কিশোর নিখোঁজ হয়েছে। এখনও সে নিখোঁজ রয়েছে। গত শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) বাঘার পদ্মা নদীর মুশিদপুর এলাকার খেয়াঘাটে অদূরে ডুবে মারা যায় উপজেলার খায়েরহাট গ্রামের সুজন আলীর ১০ বছরের ছেলে সিয়াম হোসেন সজীব।

 

আরপি/আআ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top