রাজশাহী মঙ্গলবার, ২১শে মে ২০২৪, ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রেল হাসপাতালের কেনাকাটায় ৭ কোটি টাকার অনিয়ম!


প্রকাশিত:
১৬ জানুয়ারী ২০২৩ ০৯:২৫

আপডেট:
২১ মে ২০২৪ ১৮:৫৮

ছবি: অভিযান

বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতালে কেনাকাটায় অনিয়মের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অভিযান চালিয়েছে। রেল পশ্চিমাঞ্চলের আওতাধীন হাসপাতালগুলোতে উপকরণ কেনাকাটায় সাত কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগে এ অভিযান চালানো হয়।

রোববার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে দুদকের রাজশাহী জেলা সমন্বিত কার্যালয় এ অভিযান চালায়। এ সময় দুদক বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র নিয়ে যায় ও অনুসন্ধানের প্রয়োজনে আরও কিছু নথিপত্র তলব করে।

দুদক রাজশাহী জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইন গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের আওতাধীন হাসপাতালগুলোতে বিভিন্ন উপকরণ কেনাকাটা খাতে সাত কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ পায় দুদক। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে হাসপাতালগুলোর বিভিন্ন খরচের ওপর অডিট করে মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের টিম। ২০১৯ সালে সম্পন্ন হওয়া এই অডিটে ৭ কোটি ২০ লাখ টাকা খরচ অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়।

অভিযোগ তদন্তে দুদক রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইনের নেতৃত্বে দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম নগরীর শিরোইল এলাকায় অবস্থিত রেলওয়ে হাসপাতালে ঝটিকা অভিযান চালায়। টিমে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন ও সহকারী পরিদর্শক মাজবুবুর রহমানও ছিলেন।

এ সময় বিভাগীয় মেডিকেল অফিসার ডা. এসএম মারুফুল ইসলামকে অনিয়মের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দুদক। পরে হাসপাতালের কেনাকাটা ও খরচ সংক্রান্ত বেশকিছু রেকর্ড সংগ্রহ করেন তারা। পরে রেল ভবনে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদারের দফতরে যায় দুদকের টিম। সেখানে নিজ দফতরে মহাব্যস্থাপকের কাছেও অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। তার কাছ থেকেও এ সংক্রান্ত নথিপত্র তলব করেছে দুদক।

রেল পশ্চিমাঞ্চল হাসপাতালের বিভাগীয় মেডিকেল অফিসার ডা. এসএম মারুফুল ইসলাম বলেন, দুদকের একটি টিম হাসপাতালে এসেছিল। তারা আমাদের কাছে নানা অনিয়মের তথ্য জানতে চেয়েছিলেন। বেশকিছু নথিপত্রও নিয়ে গেছেন। আরও রেকর্ডপত্র চেয়েছেন। কয়েকদিনের মধ্যে তা সরবরাহ করা হবে।

এ বিষয়ে রেল পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার বলেন, দুদকের একটা টিম এসেছিলো গোপনীয় কিছু বিষয়ে কথা বলতে। তারা আমাদের কাছে কিছু তথ্য চেয়েছেন। অনেক আগের কিছু তথ্যের ব্যাপারে জানতে চাইলে আমি সংশ্লিষ্টদের সাথে সমন্বয় করে দিয়েছি যেন সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হয়।

 

 

আরপি/এসআর-০২



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top