রাজশাহী শুক্রবার, ৩০শে সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ই আশ্বিন ১৪২৯

বাঘায় আশুরার মিছিলে ‘হাই হোসেন-হাই হোসেন’ মাতম


প্রকাশিত:
৯ আগস্ট ২০২২ ২১:০৮

আপডেট:
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:১৯

ছবি: প্রতিনিধি

রাজশাহীর বাঘায় ১০ মহরম পবিত্র আশুরা পালিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ আগষ্ট) পাকুড়িয়ার পাগলি মা এর মাজার প্রাঙ্গনে প্রিয় নবী (সাঃ) এর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন (রাঃ) এর জীবনী নিয়ে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের করা হয়। আশুরা উপলক্ষে পাগলি মা মাজার কমিটি মাজার প্রাঙ্গনে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

অঝোর নয়নে কাঁদে আর হোসেনের মৃত্যুর স্বরণে গীত গাইতে গাইতে শোভা যাত্রা নিয়ে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহনে আসেন শত  শত মানুষ। উপজেলার পাকুড়িয়ার পাগলি মায়ের মাজার এলাকায় বিভিন্ন এলাকা থেকে আশুরার বেদনা দায়ক মূহুর্তে হায় হোসেন, হায় হোসেন মাতম, ইয়া হোসেন, ইয়া হোসেন করতে থাকেন। এ উপলক্ষে এখানে হরেক রকমের দোকান সাজিয়ে বসানো হয়।

নাটোর জেলার লালপুর উপজেলা রামপাপাড়া গ্রামের মকুল হোসেন বলেন, প্রতিবছর এই দোয়া ও আলোনায় অংশ গ্রহণ করি। এখানে প্রিয় নবী (সাঃ) এর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন (রাঃ) এর জীবনী নিয়ে আলোচনা হয়। এই আলোচনা খুব ভাল লাগে।

লালপুরের জমসেদ আলী ও সারোয়ার হোসেন বলেন, প্রায় শতাধিক মানত করা কিশোর-কিশোরিসহ নানা বয়সের লোকজন নিশান হাতে নিয়ে পায়ে হেঁটে বাঘা উপজেলার পাকুড়িয়া পাগলি মায়ের মাজারে যাচ্ছিলেন। সেখানে খাওয়া দাওয়া শেষে প্রিয় নবী (সাঃ) এর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন (রাঃ) এর জীবনীর আলোচনা ও দোয়ায় অংশ নিব।

এ বিষয়ে বাঘা প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সিনিয়র সাংবাদিক আবদুল লতিফ মিঞা বলেন, পিতা মাতারা নিজেদের সন্তানের জন্য আপদ বিপদ রক্ষার জন্য মানত করেন। কিশোর-কিশোরিসহ নানা বয়সের লোকজন সেই মানত করা প্রিয় নবী (সাঃ) এর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন (রাঃ) প্রতি সমবেদনা জানিয়ে হায় হোসেন, হায় হোসেন স্লোগান দিয়ে এলাকার ঘুরে অর্থ সংগ্রহ করেন। সেই অর্থ দিয়ে চাল ডাল কিনে তবারক রান্না করে নিজেরা খান এবং অন্যদের মাঝে বিতরণ করেন।

বাঘা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর জুবান আলী মালিথা বলেন, এখানে নারী, পুরুষ, বয়োবৃদ্ধ সকলের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে। এখানে হরেক রকমের পণ্য পাওয়া যায়। চলে ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা।

উপজেলার পাকুড়িয়ার পাগলি মায়ের এর মাজার কমিটির সভাপতি বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র আক্কাছ আলী বলেন, আশুরা উপলক্ষে ১০ মহরম আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। শেষে প্রিয় নবী (সাঃ) এর দৌহিত্র হাসান ও হোসেন (রাঃ) এর জীবনী নিয়ে আলোচনা করা হয়। তাদের রেখে যাওয়া পথ অনুসরণের মাধ্যমে মুসলিম জাতির ইহ ও পারলৌকিক মুক্তি কামনা করা হয়। এখানে অনেক দর্শনার্থীরা দেখতে আসেন এবং দোয়া পড়েন।

 

আরপি/ এমএএইচ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top