রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ১১ই আগস্ট ২০২২, ২৮শে শ্রাবণ ১৪২৯

জননেতা আতাউর রহমানের ৪২ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত


প্রকাশিত:
১২ জানুয়ারী ২০২২ ২১:১০

আপডেট:
১২ জানুয়ারী ২০২২ ২১:১২

ছবি: স্মরণ সমাবেশ

রাজশাহীতে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষাসেনানী, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা ও বঙ্গবন্ধুর বাকশাল সরকারের জেলা গর্ভনর সাবেক এমএনএ নির্যাতিত জননেতা আতাউর রহমানের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হয়েছে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট রাজশাহী প্রেসক্লাব চত্বরে এক স্মরণ সমাবেশের মধ্য দিয়ে এ মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হয়। উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ ও রাজশাহী প্রেসক্লাব যৌথভাবে এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

সংগঠন দুটির সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আসলাম-উদ-দৌলার সঞ্চালনায় আয়োজিত এ সমাবশে ঢাকা থেকে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) চেয়ারম্যান আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

সমাবেশে প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন রাজশাহী প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য বিশিষ্ট কলামিস্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রশান্ত কুমার সাহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন রাশিয়ার লমনোভস্কি স্টেট ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন কৃতি শিক্ষার্থী আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. মোস্তাফিজুর রহমান।

অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আব্দুল ওয়াদুদ, রাজশাহী সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ জুলফিকার, রাজশাহী বারের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট শিরাজি শওকত সালেহিন এলেন, বিটিসি নিউজের সম্পাদক খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান রেজা, জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদের সহঃ সভাপতি সালাউদ্দীন মিন্টু, প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক আমানুল্লাহ আমান প্রমূখ।

কর্মসূচিতে মুক্তিযুদ্ধের তথ্য সংগ্রাহক ওয়ালিউর রহমান বাবু, জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদের সিনিয়র সদস্য মো. শরিফ উদ্দিন, ব্যাংকার নয়া রহমান, ২৬ নম্বর ওয়ার্ড আহবায়ক মো. ইউসুফ আলী, সদস্য আব্দুল মাজেদ, জামিল হোসেন জনি, আরিফুল ইসলাম, নুরেনা আক্তার, হানিফ চৌধুরীসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

স্মরণ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৮০ সালের আজকের এই দিনে সবাইকে কাঁদিয়ে চিরবিদায় নেন দেশবরেণ্য রাজনীতিক বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ বন্ধু জননেতা আতাউর রহমান। যিনি ছিলেন গণমানুষের অধিকার আদায়ের সাহসী এক বীর পুরুষ। নিজের কথা না ভেবে সর্বদা কাজ করেছেন জনগণের জন্য। আজ তাঁর মতো রাজনীতিবিদের বড়ই অভাব।

তারা বলেন, জননেতা আতাউর রহমানকে ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। তার আদর্শ তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে কাজ করতে হবে সকলকে। মহান এ মানুষদের পথ অনুসরণ করে চললেই দুর্নীতিমুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়া সম্ভব।

এর আগে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির পক্ষ থেকে শীতার্ত এবং অসহায়-দরিদ্র মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়। আগামী ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত চলমান থাকবে এ কার্যক্রম।

 

 

 

আরপি/এসআর-১২



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top