রাজশাহী শুক্রবার, ২৩শে এপ্রিল ২০২১, ১০ই বৈশাখ ১৪২৮


বিয়ে আর বাচ্চা ছাড়া সব কিছু মিথ্যা: তামিমা


প্রকাশিত:
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৯:৩১

আপডেট:
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৯:৩৫

ছবি: নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা তাম্মি

জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও বিমানবালা তামিমা সুলতানা তাম্মির বিয়ে নিয়ে বিতর্ক শেষ হচ্ছে না। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তাদের বিয়ের পরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে তামিমার আরেকটি বিয়ের খবর। সেখানে আগের স্বামী রায়হান দাবি করেন, তাকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা। এ নিয়ে বুধবার মামলাও করেন তামিমার আগের স্বামী রায়হান।

বিয়ে নিয়ে যখন এমন জলঘোলা হচ্ছে ঠিক সেসময়ই গণমাধ্যমে সংবাদ সম্মেলনে আসেন এ নবদম্পতি। রাজধানীর বনানীতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তামিমা দাবি করেন, তার আর একটি বিয়ে ও বাচ্ছা ছাড়া রাকিব যা দাবি করছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। রাকিবকে তালাক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সম্পূর্ণ আইন মেনে ডিভোর্স দেওয়া হয়। যখন ডিভোর্সটা হয় তার পরিবারবর্গ ও তিনি সব জানতেন। উনি যেটা করছেন কেন করছেন, তা আপনাদের সবারই বোঝা হয়ে গেছে।

উনি যতগুলো কথা বলেছেন দুইটা জিনিস ছাড়া (ওনার সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছে এবং আমাদের একটা বাচ্চা আছে) এটা ছাড়া সম্পূর্ণ কথাই মিথ্যা। উনি যা যা বলেছেন প্রত্যেকটি কথার প্রমাণ আমাদের কাছে আছে। আরেকটা কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই বিভিন্ন ফেসবুক বা মিডিয়ায় আমাদের ফেক আইডি খুলে যে ফেক নিউজগুলো দেওয়া হয়েছে আমাদের বিষয়ে, আসলে আমার কোনো ফেসবুক আইডি অ্যাকটিভ নেই, ইভেন নাসিরেরও নেই। নাসিরের একটা ফেসবুক পেজ আছে। ‌‘যদি আমাদের কিছু জনগণকে জানাতে হয়, তো সে ক্ষেত্রে আমরা আপনাদের মাধ্যমে গণমাধ্যমে অথবা ওর ভেডিরফাইড ফেসবুক পেজ থেকে জানাবো।’

তামিমা এটিও দাবি করেন, জন্মের পর থেকে একমাত্র মেয়েকে নিজের কাছেই রাখেন এবং ডিভোর্সের পর সব সময় মেয়ের খোঁজ নেন সব বিষয়। তবে দাবি করেছেন, ২০১৯ সালে রাকিব হাসান মেয়ের সঙ্গে দেখা করার কথা বলে ওকে নিয়ে যায়। ‘২০১৯ সাল পর্যন্ত আমার কাছেই ছিল। আমি আমার মেয়ের ফিট হওয়া, পড়াশোনাসহ সব কিছুই দেখেশোনা করেছি। আমাদের মধ্যে সব সময় যোগাযোগ হয়েছে কিন্তু ২০১৯ সালে মেয়ের সঙ্গে ওর বাবা দেখা করবে বলে তাকে আমার কাছ থেকে নিয়ে যায়।’

এবারের ভালোবাসা দিবসে প্রেমিকা তামিমাকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন নাসির। পরিকল্পনামাফিক জমকালো উদযাপনে সেদিন বিয়েটাও করে ফেলেন। বিয়ের সপ্তাহ না গড়াতেই রাকিব হাসান নামে এক যুবক নাসিরের স্ত্রীর নামে জিডি করেন। রাকিবের অভিযোগ– নাসির তার স্ত্রীকে বিয়ে করেছে। নাসিরকে বিয়ের আগে তামিমা রাকিবকে ডিভোর্স দেননি। ওই সংসারে তাদের আট বছরের কন্যাসন্তান রয়েছে।

আরপি/ এসআই-১৩



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top