রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ২৩শে মে ২০২৪, ৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


শিগগিরই মাদকের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি ফুলফিল হবে


প্রকাশিত:
২২ ডিসেম্বর ২০২২ ০৭:৫৮

আপডেট:
২৩ মে ২০২৪ ০৩:৫৭

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

দেশে মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বান- ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি শিগগিরই পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ডিগ্রি কলেজ মাঠে আয়োজিত মাদক ও সন্ত্রাসবিরোধী সুধী সমাবেশে অংশ নিয়ে এই আশার কথা জানান তিনি।

রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশের আয়োজন করে রাজশাহী জেলা পুলিশ।

মাদক ও সন্ত্রাসবিরোধী সুধী সমাবেশে অংশ নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাদকের সাপ্লাই হ্রাসের জন্য আমাদের বিজিবি কঠিন অবস্থায় রয়েছে। যখনই এগুলো আসছে তখনই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আমাদের কিছু দুর্গম ফাঁক-ফোকর রয়েছে। তারমধ্যে মিয়ানমার দিয়ে ইয়াবাটা চলে আসে। খুব শিগগিরই বিজিবিকে আমরা যেভাবে শক্তিশালী করেছি, তাদের হেলিকপ্টার কিনে দিয়েছি, বর্ডারে সেন্সর বসানোর ব্যবস্থা করছি। আমরা আশা করছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সেই জিরো টলারেন্সের যে আহ্বান, সেটা ফুলফিল করতে পারব বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। 

মন্ত্রী বলেন, পুলিশ ফোর্স শুধু পুলিশ নয়, তারা দেশকে ভালোবাসেন, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসেন। তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত। সেই জন্যই পুলিশ আজকে অনেক অসম্ভবকে সম্ভব করে দিয়েছে। এই রাজশাহীতেই আপনারা পুলিশকে হেলমেট দিয়ে পিটিয়ে পিটিয়ে হত্যার প্রচেষ্টা দেখেছেন। সেই জায়গা থেকে ঘুরে এসে পুলিশ আজকে জনগণের বন্ধু হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নানা উন্নয়নের প্রসঙ্গ টেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তিনি যা বলেন, তাই তিনি করে দেখাচ্ছেন। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা বলছিলেন। আজকে ডিজিটাল বাংলাদেশ, আমাদের স্বপ্ন, সেটা সফল হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের ‘ব্রেইন চাহিদা’ এগুলো। তিনি আমাদের গাইডলাইন দিয়েছিলেন, তার সুফল আজকে সারা বাংলাদেশ পাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী যে স্মার্ট বাংলাদেশের ডাক দিয়েছেন সেটিও ২০৪০ সালের মধ্যেই হয়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার কোনো পেশিশক্তির মাধ্যমে ক্ষমতায় আসিনি উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসেছি জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে। জনগণ যখন যাকে ইচ্ছা ভোট করছে। অনেক বছর অপেক্ষা করে জনগণ যখন আমাদের জয়যুক্ত করছেন আমরা তখনই এসেছি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের কিছুসংখ্যক রাজনীতিবিদ জনগণকে বিভ্রান্ত করে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ক্ষমতা দখলের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আজকের জনগণ সেগুলোয় ধিক্কার দিচ্ছে। আমরা জনগণের কথামতো সব ধরণের সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার পরেও তারা অন্যভাবে প্রচেষ্টা নিয়েছিলেন। জনগণ সেগুলোর সবই প্রত্যক্ষ করেছেন।

সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যদের মধ্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জি এস এম জাফরউল্লাহ, পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি আবু হাসান মুহম্মদ তারিক, আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল, রাজশাহীর পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন, রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান, সংরক্ষিত আসনের এমপি অ্যাডভোকেট আদিবা আঞ্জুম মিতা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বুধবার সকালে মন্ত্রী রাজশাহীর বাঘায় আনসার ভিডিপির কার্যালয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। পরে দুপুরে রাজশাহী পুলিশ লাইন্সে ‘চিরঞ্জীব বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল’ উদ্বোধন ছাড়াও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

 

আরপি/এসআর-০৬



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top