রাজশাহী সোমবার, ২৩শে নভেম্বর ২০২০, ১০ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭

গোদাগাড়ীতে

অগ্নিকাণ্ডে বাড়ির সবকিছু পুড়ে ছাই, উপজেলা প্রশাসনের সহায়তা পেল পরিবার


প্রকাশিত:
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৮:১৪

আপডেট:
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৮:১৯

বাড়ি পরিদর্শনে উপজেলা প্রশাসন

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় একটি বাড়ির সবকিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বাড়ীর মালিক এ এলাকার আনিকুল ইসলাম।তিনি একজন দিনমজুর।

আগুন লাগায় আসবাবপত্রসহ বাড়ির সবকিছুই পুড়ে যায়। পুড়ে মারা গেছে খামারের মুরগিও। কোন কিছুই অবশিষ্ট নেই, শুধু দাঁড়িয়ে আছে কংক্রিটের পোল ও একটি টিনের দরজা। মুরগির খামারে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আনিকুল জানান, গভীর রাতে কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই আগুন পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিবেশীদের সহায়তায় তারা আগুন নেভানোর চেষ্টা করে কিন্তু কোন লাভ হয়নি। এরই মধ্যে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়া হয়। গোদাগাড়ী ফায়ার স্টেশনের সদস্যরা এসে আগুন নেভান। কিন্তু ততক্ষণে বাড়ির সবকিছু পুড়ে ছাই।

তিনি আরও বলেন, পরনের কাপড় ছাড়া তাদের আর কিছুই নেই। নগদ টাকা, খামারের মুরগি, আসবাবপত্রসহ সবকিছুই পুড়ে গেছে। তিনি ধারণা করছেন ক্ষতির পরিমাণ প্রায় তিন লাখ টাকা।

পরিবারটির এমন দুরাবস্থার খবর পেয়ে দুপুরে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আলমগীর হোসেন। এ সময় তার সঙ্গে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী আবু বাশির এবং মাটিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শহিদুল করিম শিবলীও উপস্থিত ছিলেন।

গোদাগাড়ী ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স এর স্টেশন অফিসার আতাউর রহমান বলেন, মুরগির খামারে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইউএনও আলমগীর হোসেন জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিবারটিকে তিন বান্ডিল টিন দেয়া হচ্ছে। ইউপি চেয়ারম্যান টিনগুলো আজই পৌঁছে দেবেন। আর আমি ৩৪ কেজি খাদ্যসামগ্রী দিয়ে এসেছি।পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করলে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে নগদ টাকাসহ অন্যান্য সরকারি সহায়তা প্রধান করা হবে।

 

 

আরপি/এসকে




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top