রাজশাহী শনিবার, ২রা মার্চ ২০২৪, ২০শে ফাল্গুন ১৪৩০


ডিসির গাড়িচালককে মারধরের দায়ে দুই কনস্টেবল প্রত্যাহার


প্রকাশিত:
১১ এপ্রিল ২০২২ ১০:৪৫

আপডেট:
১১ এপ্রিল ২০২২ ১১:০৭

ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুরের ডিসির গাড়িচালককে মারধর, ২ পুলিশ কনস্টেবল প্রত্যাহারছবি: ঢাকা মেইল
গাজীপুর জেলা প্রশাসকের (ডিসি) গাড়িচালক হিরা মিয়াকে ট্রাফিক পুলিশের মারধরের ঘটনায় দুই কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

রোববার (১০ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে শহরের রাণী বিলাসমনি বালক উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন মোড়ে এই মারধরের ঘটনা ঘটে। পরে দুপুর ১টার দিকে তাদের প্রত্যাহার করা হয়। প্রত্যাহার হওয়া ওই দুই ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল হলেন ইউসুফ আলী ও নুর মোহাম্মদ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চালক হিরা মিয়া জেলা প্রশাসকের দুই শিশু মেয়েকে স্কুল থেকে জেলা প্রশাসনের স্টিকার যুক্ত গাড়িযোগে বাসায় ফিরছিলেন। গাড়িটি রাণী বিলাসমনি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ে আসলে দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রাফিক পুলিশ ঘুরিয়ে অন্য রাস্তা দিয়ে যেতে বলেন। এ সময় চালক হিরা মিয়া ট্রাফিক পুলিশকে জানায় গাড়িতে জেলা প্রশাসকের দুই মেয়ে রয়েছে।

এ নিয়ে বাগবিতন্ডার জেরে পুলিশ সদস্য ডিসির গাড়িতে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে চালক প্রতিবাদ, তর্ক করলে তাকেও লাঠি দিয়ে আঘাত করা হয়। এক পর্যায়ে চালককে টেনে হিঁচড়ে নামানোর চেষ্টা করে কনস্ট্রেবল নুর মোহাম্মদ এবং ইউসুফ আলী। টালমাটাল অবস্থা বুঝে চালক রাস্তা ঘুরিয়ে ডিসির বাসভবনে চলে যান।

ট্রাফিক পুলিশ কর্তৃক জেলা প্রশাসকের (ডিসি) গাড়ী চালক হিরা মিয়াকে মারধরের খবর পেয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সকল কর্মচারীরা রাস্তায় নেমে আসে। তারা মিছিল সহকারে রাজবাড়ি সড়ক আধাঘন্টা ব্যাপী অবরোধ করে পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে। পরে প্রশাসকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিক্ষোভকারী কর্মচারিদের বুঝিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অভ্যন্তরে নিয়ে যান।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ঘটনার পর অভিযুক্ত দুই পুলিশ কনস্টেবলকে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য কমিটিও গঠনের কথা জানান তিনি।

 

 

আরপি/এসআর-০৩



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top