রাজশাহী সোমবার, ২২শে জুলাই ২০২৪, ৮ই শ্রাবণ ১৪৩১


মসজিদের পুকুর নিজের নামে নিলেন যুগ্ম সম্পাদক!


প্রকাশিত:
১৩ এপ্রিল ২০২৩ ১৯:১২

আপডেট:
২২ জুলাই ২০২৪ ১৩:২৪

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারে একটি জামে মসজিদের সরকারি খাস পুকুরের লিজ বাতিল করে নিজের নামে করে নিলেন ওই মসজিদ কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ রঞ্জুল। গত ১ মাস আগে মসজিদের লিজ বাতিল করে নিজের নামে ডিসিআর নেন তিনি।

এ ঘটনায় পর ওই খাস পুকুরে গোপনে মাছ চাষ করছিলেন এতে করে মসজিদ কমিটির সভাপতি সহ সকল সদস্যদের সাথে হট্টগোল সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের কাজীপুর গ্রামে।

কাজীপুর জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি খোকন জানান, গত ৩০ বছর ধরে প্রায় ২ বিঘা সরকারি খাস পুকুর লিজ নিয়ে মসজিদ কমিটি মাছ চাষ করে আসছিলেন। আর এই পুকুর থেকে যা আয় হয় মসজিদের উন্নয়নের কাজে সেটা ব্যবহার করা হয়। ৩ বছর পর পর ভূমি অফিস থেকে পুকুরটি লিজ নেওয়া হয়। এবার মেয়াদ শেষ হবার পর পরবর্তী ৩ বছরের জন্য ডিসিআর নেয়ার জন্য কমিটির পক্ষ থেকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রঞ্জুলকে উপজেলা ভূমি অফিসে পাঠানো হয়।

তখন তিনি (রঞ্জুল) ভূমি অফিসে গিয়ে মসজিদের নামের পুকুর লিজ বাতিল করে নিজের নামে ডিসিআর নেন। এরপর গোপনে পুকুরে মাছ ছেড়ে চাষ করছিলেন। চলতি মাসের গত শুক্রবার মাছ চাষ করা নিয়ে মসজিদ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ সকল সদস্যদের সাথে পুকুর পাড়ে এক হট্টগোল সৃষ্টি হয়। পরে ৯৯৯ ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

অভিযুক্ত রঞ্জুল জানান, কয়েকদিন আগে উপজেলার এক কর্মকর্তা সঙ্গে কথা হয়। এ সময় তাকে জিজ্ঞেসা করলে তিনি বলেন পুকুরের পাশে যখন জায়গা আছে এক্ষেত্রে আপনি লিজ নিতে পারবেন। এরপর একদিন অফিসে গিয়ে সরকারি কোষাগারে টাকা জমা করে ডিসিআর নিজের নামে করে নেই। তবে এখন এই পুকুরের বৈধ মালিক আমি।

গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে আরিফুল ইসলাম বাবু জানান, আমরা দীর্ঘদিন ধরে দেখে আসছি ওই খাস পুকুরটি মসজিদের নামে ছিলো। তাছাড়া মসজিদের আয়ের জন্য তেমন জমি জমা নেই। কাজটি খুব অন্যায় করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক রকিব হোসেন জানান, সে দিন ৯৯৯ এর ফোন পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়। এরপর সেখানকার উত্তেজিত ঘটনার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আদমদীঘি সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুনিরা সুলতানা জানান, আমি কিছু দিন হলো এখানে এসেছি ঘটনার বিষয়ে আমার জানা নেই। যদিও হয়ে থাকে বিষয়টি দেখে একটি সমাধান করা হবে।

 

আরপি/এসআর-০৭



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top