রাজশাহী সোমবার, ৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫শে মাঘ ১৪২৯


সান্তাহারে প্রেসক্লাব ও ষ্টেশনারীতে সন্ত্রাসী হামলা


প্রকাশিত:
২৯ নভেম্বর ২০২২ ১৮:১০

আপডেট:
৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২২:১২

ছবি: সন্ত্রাসী হামলা

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার প্রেসক্লাবে হামলা চালিয়েছে মেরাজুল ইসলাম নামের এক মাদকসেবীর নেতৃত্বে কয়েকজন সন্ত্রাসী।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) বেলা ১১টার দিকে সান্তাহার ষ্টেশন রোডে অবস্থিত প্রেসক্লাব ও একটি ষ্টেশনারী দোকানে এই হামলার ঘটনা ঘটে। মেরাজুল ইসলাম নওগাঁ জেলার দোগাছী গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মেরাজুল ইসলাম একজন মাদক ব্যবসায়ি ও মাদকসেবী। আদম ব্যবসা ও প্লেনের টিকিটের ব্যবসার আড়ালে মেরাজুল ইসলাম নিয়মিত মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। মুক্তিযোদ্ধা মাকের্টে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত মাদক কেনাবেচা হওয়ায় প্রেসক্লাবের সদস্যরা তাকে মাদক কেনাবেচা করতে নিষেধ করে।

একইভাবে মেরাজুলের পাশের দোকানের ষ্টেশনারী দোকানের মালিক নয়ন হোসেনও মাদক কেনাবেচায় মেরাজুলকে নিষেধ করলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। মঙ্গলবার মেরাজুল ইসলাম মাদকাসক্ত হয়ে কয়েকজন সন্ত্রাসীকে সাথে নিয়ে এসে নয়ন হোসেনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে এবং নয়ন কে হেলমেট দিয়ে মারপিট করে দুটি মুঠোফোন ও দোকানের ক্যাশ বাক্সে থাকা প্রায় ৫০ হাজার টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়।

সন্ত্রাসীরা যাওয়ার সময় নয়নকে দোকান ঘরে আবদ্ধ করে রাখে। এরপর তারা ওই মাকের্টের অবস্থিত প্রেসক্লাবের দরজা ভেঙে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয় জনগনের প্রতিরোধের মুখে সন্ত্রাসী দল সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

সান্তাহার প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম মন্টু বলেন, মেরাজুল ইসলাম নামের ওই মাদকসেবীর নেতৃত্বে কয়েকজন সন্ত্রাসীরা আমরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়েও আমাকে খোঁজ করে কিন্তু আমি না থাকায় আমাকে অকথ্য ভাষা গালিগালাজ করে চলে যায়।

সান্তাহার প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম আম্বিয়া লুলু বলেন, মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসীরা এই হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। হামলার সময় প্রেসক্লাবের কেউ অফিসে ছিলেন না। বিষয়টি থানা ও শহর পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আদমদীঘি থানার ওসি রেজাঊল করিম রেজা বলেন, সান্তাহার প্রেসক্লাব ও একটি ষ্টেশনারী দোকানে এই হামলার ঘটনা কথা শুনেছি এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

 

 

 

আরপি/এসআর-০৩



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top