রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ৬ই আগস্ট ২০২০, ২৩শে শ্রাবণ ১৪২৭

বাংলাদেশের পর ইংল্যান্ড ডিজিটাল হয়েছে: মোস্তাফা জব্বার


প্রকাশিত:
২৭ জুলাই ২০২০ ১৫:১৯

আপডেট:
৬ আগস্ট ২০২০ ১৫:৩২

 ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ফাইল ছবি

ইংল্যান্ডের আগে বাংলাদেশ ডিজিটাল দেশ হিসেবে রূপান্তর হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সেমিনারে তিনি এ দাবি করেন। আজ রোববার মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে বাংলাদেশ সরকার ডিজিটাল রূপান্তরের কথা বলেছে। আর ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরাম এই বিপ্লবের কথা বলেছে ২০১৬ সালে। এমনকি ইংল্যান্ড আমাদের এক বছর পর বলেছে। ভারত ২০১৪ সালে, মালদ্বীপ ২০১৫ সালে এবং পাকিস্তান ২০১৯ সালে তাদের দেশকে ডিজিটালে রূপান্তরের ঘোষণা দিয়েছে।

তিনি বলেন, শিল্প বিপ্লবে পিছিয়ে থাকা কৃষিভিত্তিক একটি দেশকে ডিজিটালে রূপান্তর করাটা সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ ছিল। তারপরও শত বাধা অতিক্রম করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রযুক্তিতে ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের নেতৃত্বের জায়গায় উপনীত হয়েছে।

সেই ধারাবাহিকতায় গত ১১ বছরে বাংলাদেশ বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী দেশ হিসেবে গৌরব অর্জন করেছে দাবি করে মন্ত্রী বলেন, এমনকি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট কেনিয়াবাসীকে উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশকে অনুসরণের জন্য রোল মডেল হিসেবে উপস্থাপন করেছিলেন। বর্তমানে মোবাইল ফিনান্সিয়াল সেবায় বাংলাদেশ পৃথিবীর দ্বিতীয়তম। জনগণের জন্য অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ সেবা ডিজিটাল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের তরুণরা অত্যন্ত মেধাবী। করোনার কারণে পৃথিবীতে যে পরিবর্তন এসেছে, তা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও আর আগের জায়গায় ফিরে যাবে না। তাই ডিজিটাল প্রযুক্তির বিকাশের মাধ্যমে দেশের সম্ভাবনাময় প্রতিভাকে কাজে লাগাতে হবে।

তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি আরো বলেন, তোমাদের মতো সেরা মেধাবী পৃথিবীতে খুব কমই আছে, তোমরা পারবে না এমন কোনো কাজ নেই। স্টিভ জবস পারলে তোমাদেরও পারতে হবে।

 

আরপি/আআ-০৭




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top