রাজশাহী সোমবার, ২২শে এপ্রিল ২০২৪, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১


অভিনেত্রী হিমুর মৃত্যু, যা বললেন মেকআপ আর্টিস্ট মিহির


প্রকাশিত:
৫ নভেম্বর ২০২৩ ১৮:০৯

আপডেট:
২২ এপ্রিল ২০২৪ ১৪:৫৭

ফাইল ছবি

অভিনেত্রী হুমায়রা হিমুর মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে রহস্য। ইতোমধ্যে অভিনেত্রীর প্রেমিক জিয়াউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, হিমু অনলাইন জুয়া খেলায় আসক্ত ছিলেন। পাশাপাশি র‌্যাবের নজরদারিতে রয়েছে মেকাপ আর্টিস্ট মিহিরও। এবার ফেসবুক লাইভে এসে অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে মুখ খুলেছেন মিহির।

রোববার (৫ নভেম্বর) সকালে নিজের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে সেদিনের ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন মিহির।

পাশাপাশি ১০ মিনিট ৪০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে তার মানসিক অবস্থার কথাও তুলে ধরেন এই মেকআপ আর্টিস্ট। ইতোমধ্যে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে নেটদুনিয়ায়। 

আরও পড়ুন: জুয়ায় আসক্ত হিমু প্রেমিকের সামনেই ফাঁস নেন, দাবি র‌্যাবের

মেকআপ আর্টিস্ট মিহির বলেন, হিমুর মৃত্যুর পর আমাকে জড়িয়ে ফেসবুকে অনেকে বিরূপ মন্তব্য করছেন। এসবের কারণে ব্যাপক মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছি আমি।

তিনি আরও জানান, মিহির নিজে কোনো অপরাধ করেননি। কোথাও পালিয়েও যাননি। বরং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী থেকে শুরু করে হিমুর স্বজনদের সাহায্য করেছেন।

হিমুর উত্তরার বাসায় প্রেমিকের উপস্থিতির কথা উল্লেখ করে বলেন, হিমুর সঙ্গে কোনো কিছু হইছে। দুর্ভাগ্যবশত আমি সেটা দেখতে পারি নাই। অন্য রুমে ঘুমিয়ে ছিলাম। তবে ওর বয়ফ্রেন্ড ছিল রুমে। আমি ধারণাও করিনি ও হিমুর সঙ্গে ঝগড়া করবে বা খুনোখুনি হয়ে যাবে, মারামারি হবে।

মেকআপ আর্টিস্ট বলেন, হিমুর বয়ফ্রেন্ড যখন আমাকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে দিখিয়েছে, তখন আমি তাকে প্রশ্ন করেছিলাম, আপনি রুমে থাকতে কিভাবে এই ঘটনা ঘটল। তখন বলে, সে বাথরুমে ছিল। একটা মানুষ বাথরুমে থাকবে আর আরেকটা মানুষ ফাঁসি দিয়ে ফেলবে, এটাও আমি মেনে নিতে পারতেছিলাম না। আমি কোনো কিছুই মেনে নিতে পারতেছিলাম না। আমার মনে হয়, হিমু ফাঁসি দিতেই পারে না। হিমু ফাঁসি দেয় নাই। হিমু এত স্ট্রং।

আরও পড়ুন: নির্বাচন কমিশনের সচিব ছাড়া অন্যদের গণমাধ্যমে কথা বলতে মানা

নিজেকে ঘটনার রাজসাক্ষী হিসেবে উল্লেখ করে মিহির বলেন, আমি ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে সাক্ষী দিয়ে আসছি। কিন্তু এখন নতুন করে আমাকে নিয়ে ফেসবুকে যা শুরু হয়েছে, সেগুলো আমাকে মানসিক যন্ত্রণা দিচ্ছে। আমি হতাশায় আছি। আমি যদি কোনো দুর্ঘটনা ঘটাই সেটার জন্য পুরো মিডিয়ার মানুষ দায়ী থাকবে। যারা উঠে-পড়ে লেগেছেন তারা দায়ী থাকবেন।

তিনি বলেন, ডিবি, র‌্যাব, পুলিশের যেকোনো কর্মকর্তা যে কোনো মুহূর্তে আমাকে ফোন দিলে আমি হাজির হব। আমি কোথাও পালাব না। পালিয়ে যাওয়ার ছেলে আমি না। আমি কোনো ধরনের ক্রাইম করিনি।

 

 

আরপি/এসআর-১৮



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top