রাজশাহী রবিবার, ২৭শে নভেম্বর ২০২২, ১৩ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯


‘জঙ্গিবাদ ও আগুন সন্ত্রাস রুখতে পুলিশ দৃঢ় প্রতিজ্ঞ’


প্রকাশিত:
২৩ নভেম্বর ২০২২ ২৩:১১

আপডেট:
২৭ নভেম্বর ২০২২ ০৫:৩১

ছবি: সুধী সমাবেশ

জঙ্গিবাদ, আগুন-সন্ত্রাসের মতো যেকোনো সন্ত্রাস বা অস্থিতিশীল অবস্থা সৃষ্টির অপপ্রয়াসকে রুখে দিতে পুলিশ দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বলে জানিয়েছেন আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) লাইনসে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। মাদক ও সন্ত্রাসবিরোধী এই সুধী সমাবেশের আয়োজন করে আরএমপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ প্রধান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মাদক ও জঙ্গিবাদ দমনে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করার পর থেকে দেশকে জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। সবাই মিলে কাজ করলে মাদকের করাল গ্রাস থেকে মাদকাসক্তদের মুক্ত করা সম্ভব।

শুধুমাত্র পুলিশ মাদককে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না জানিয়ে আইজিপি বলেন, মাদক সামাজিক সমস্যা হওয়ায় সামাজিকভাবেই দূর করার চেষ্টা করতে হবে। আমাদের শক্তির উৎস জনগণ। জনগণের সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই মাদক সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।

মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানের কথা স্মরণ করে চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন বাজি রেখে বীর মুক্তিযোদ্ধারা এই দেশ এনে দিয়েছেন। এ দেশে আবারও যদি কেউ আগুন সন্ত্রাসের চেষ্টা করে তাহলে পুলিশ এবং অন্যান্য বাহিনী সে অপপ্রয়াস রুখে দিতে দূঢ়প্রতিজ্ঞ। দেশকে সন্ত্রাসের রাষ্ট্র হতে দেওয়া যাবে না।

পুলিশ প্রধান আরও বলেন, দেশে এখন জঙ্গি নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে মাদকের ব্যাপারে এখনও স্বস্তি ফেরেনি। মাত্র ২-৩ শতাংশ মানুষ আইন মানে না। মাদকসহ অন্যান্য অপরাধে তারা জড়িত। এই মাদকের বিরুদ্ধে যত কঠিন হওয়া যায়, পুলিশ তার চেয়েও কঠিন হবে। মাদক কীভাবে দমন করতে হয় তা পুলিশের জানা আছে।

আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার, নগর বিট পুলিশিং কার্যক্রমের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরুল্লাহ, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেন, জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল, র‍্যাব-৫ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট জেনারেল রিয়াজ শাহরিয়ার, জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর ইকবাল হোসেন, নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অনিল কুমার সরকার প্রমুখ।

 

 

আরপি/এসআর-০৪



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top