রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল ২০২৪, ১২ই বৈশাখ ১৪৩১


‘আগামী বিশ্ব অর্থনীতি হবে হতাশাব্যঞ্জক’


প্রকাশিত:
২৮ জুলাই ২০২২ ০১:৫৭

আপডেট:
২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০০:৩৪

ফাইল ছবি

বিশ্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি মন্থর হচ্ছে এবং দ্রুত পুনরুদ্ধারের সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে মন্তব্য করেছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)।

মঙ্গলবার আইএমএফ বলেছে, তারা বিশ্বব্যাপী গত বছরের ৬.১% অগ্রগতি থেকে এই বছর ৩.২% মন্থর হবে বলে আশংকা করছে, যা এপ্রিলের পূর্বাভাসের চেয়ে শতাংশের চার-দশমাংশ কম।

আইএমএফ বলছে, '২০২১ সালের অস্থায়ী পুনরুদ্ধারের পর ২০২২ সালেও ক্রমবর্ধমান হতাশাজনক উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে। কারণ ঝুঁকিগুলি বাস্তবায়িত হতে শুরু করেছে। এছাড়া চীন এবং রাশিয়ার মন্দার কারণে এই বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৈশ্বিক উৎপাদন সংকুচিত হয়েছে, ফলে যুক্তরাষ্ট্রের ভোক্তাদের ব্যয় প্রত্যাশার চেয়ে কম হয়েছে।'

ওয়াশিংটনভিত্তিক আন্তর্জাতিক অর্থ সংস্থাটি বলছে, 'বেশ কিছু বড় বড় ধাক্কা বিশ্ব অর্থনীতিতে আঘাত করেছে, এরমধ্যেই আবার মহামারির আঘাতে সেটি আরও দুর্বল হয়ে পড়েছে। অনুমানের চেয়ে বিশ্বব্যাপী অধিক মূল্যস্ফীতি ঘটেছে- বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র এবং প্রধান ইউরোপীয় অর্থনীতিগুলোতে। এর ফলে কঠোর আর্থিক অবস্থার সৃষ্টি হয়। এছাড়া কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাব এবং লকডাউনের কারণে চীনে যতটা আশংকা করা হয়েছিল তার চেয়েও মারাত্মক মন্দা দেখা দেয়। সেই সঙ্গে ইউক্রেনে (রাশিয়ার) যুদ্ধের ফলে আরও নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।'

আইএমএফ বলেছে, সারা বিশ্বে ভোগ্যপণ্য, বিশেষ করে খাদ্য ও জ্বালানির দাম বাড়ছে। এই বছর অগ্রসর অর্থনীতিতে খরচ ৬.৬% বাড়বে। এছাড়া উদীয়মান বাজার এবং উন্নয়নশীল অর্থনীতিতে ৯.৫% বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। উভয় পরিসংখ্যান আইএমএফ-এর আগের অনুমান থেকে প্রায় এক শতাংশ পয়েন্ট বেশি। ঝুঁকিগুলো অত্যধিকভাবে নেতিবাচক দিকেই ঝুঁকছে।

তারা বলছে, ইউক্রেনের যুদ্ধ ইউরোপীয় দেশগুলোতে রাশিয়ার প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানি হঠাৎ করে বন্ধ করে দিতে পারে এবং যদি নিয়োগকর্তারা তাদের শ্রম চাহিদা মেটাতে পর্যাপ্ত শ্রমিক খুঁজে না পান বা মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি পায়, তাহলে সেই মুদ্রাস্ফীতি প্রত্যাশার তুলনায় কমিয়ে আনা কঠিন হতে পারে।

আইএমএফ বলেছে, বিশ্বব্যাপী জীবনযাত্রার মানকে ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধি যেভাবে সংকুচিত করছে, তাই মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করা নীতিনির্ধারকদের জন্য প্রথম অগ্রাধিকার হওয়া উচিত।

সূত্র: ভয়েস অব আমেরিকা

 

আরপি/ এমএএইচ-০৬



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top