রাজশাহী শনিবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২৪, ১লা বৈশাখ ১৪৩১


বঙ্গবন্ধুকে দৈহিকভাবে হত্যা করা হলেও তার মৃত্যু নেই: রামেবি উপাচার্য


প্রকাশিত:
১৬ আগস্ট ২০২৩ ০৪:৪৭

আপডেট:
১৩ এপ্রিল ২০২৪ ০৬:০৮

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে দৈহিকভাবে হত্যা করা হলেও তার মৃত্যু নেই বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. এ.জেড.এম মোস্তাক হোসেন। 

মঙ্গলবার  (১৫ আগষ্ট) সকালে রামেবির কনফারেন্স রুমে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮ তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. এ.জেড.এম মোস্তাক হোসেন বলেন, আজ ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার স্থপতি, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদাত বার্ষিকী। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে ৪৮ বছর আগে এই দিনে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করেছিল ক্ষমতালোভী নরপিশাচ কুচক্রী মহল।

আরও পড়ুন: ডেঙ্গুতে আরও ১০ জনের মৃত্যু, ভর্তি ১৯৮৪

রামেবি উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধুকে দৈহিকভাবে হত্যা করা হলেও তার মৃত্যু নেই। কেননা একটি জাতিরাষ্ট্রের স্বপ্নদ্রষ্টা এবং স্থপতি তিনিই। সমগ্র জাতিকে তিনি বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রেরণায় প্রস্তুত করেছিলেন ঔপনিবেশিক শাসক-শোষক পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে। 

মোস্তাক হোসেন বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গড়ার কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখার পাশাপাশি দেশের মানুষকে উন্নয়নের ধারায় সম্পৃক্ত করেন বঙ্গবন্ধু। তিনি ছিলেন অসম্ভব দেশ প্রেমিক ও সাহসী মানুষ। দেশগড়ার এই সংগ্রামে চলার পথে তার দৃঢ় বিশ্বাস ছিল, তার দেশের মানুষ কখনও তার ত্যাগ ও অবদানকে ভুলে যাবে না। এই মহান নেতা আমাদের দিয়ে গেছেন একটি স্বাধীন দেশ ও একটি লাল সবুজ পতাকা।

তিনি আরও বলেন বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ আমরা বিশ্বের দরবারে আমরা মাথা উঁচু করে চলতে পারি  এবং পরিচিতি পেয়েছি এশিয়ান টাইগার হিসেবে। বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জের মধ্যেও বাংলাদেশের বর্তমান মাথাপিছু এখনো ভালো অবস্থায় রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগামী দিনে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য আমাদের সকলকে যার যার অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। একইসঙ্গে সেদিন (১৫ আগস্ট) শহীদ সকলের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন রামেবির কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. রুস্তম  আলী আহমেদ, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা.মোহা: আনোয়ারুল কাদের, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ডা. মো: আনোয়ার হাবিব, কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন, পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) ডা. মো: জাকির হোসেন খোন্দকার, পরিচালক (প.উ.) ইঞ্জিনিয়ার মো: সিরাজুম মুনির, সহকারী রেজিস্ট্রার মো: রাসেদুল ইসলাম।

আরও পড়ুন: জিয়াউর রহমানই ১৫ আগস্ট ঘটিয়েছিলেন: তথ্যমন্ত্রী

এ সময় রামেবির উপ-রেজিস্ট্রার ডা. আমিন আহমেদ খান, উপ-পরিচালক (অ.হি) মো: আখতার হোসেন, উপ-পরিচালক (প.উ.) এস.এম.ওবায়দুল ইসলাম, উপ- কলেজ পরিদর্শক ডা. মোহাম্মদ মেহেরওয়ার হোসেন, সকারী কলেজ পরিদর্শক(চ.দা) মো: নাজমুল হোসাইন, সহকারী পরিচালক (অ.হি.) মো: মফিজ উদ্দিন, সহকারী পরিচালক(প.উ.) মো: আবুল আশরাফ, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডা. মোহা: সারওয়ার জাহান, সেকশন অফিসার তানভির আহমেদ, সেকশন অফিসার মো: শাকিল আহমেদ, সেকশন অফিসার শারমিন আক্তার নূর, সেকশন অফিসার শাহারিয়ার ইসলাম, মো: মেহেদী মাসুদ সানি,মো: আসাদুর রহমান, মো: গোলাম রহমান, মোসা: সিমা আক্তার, মো: আশরাফুল ইসলাম, মো: আব্দুস সোবহান, মো: মেহেদী হাসানসহ রামেবির সকল কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

এদিকে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল ৮টায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৮টায় জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং মোনাজাত করা হয়। এরপর সকাল ০৯ টায় জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন, সহকারী-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডা. মো: আমীর হোসেন। 

 

 

 

আরপি/এসআর-২৩



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top