রাজশাহী মঙ্গলবার, ২১শে মে ২০২৪, ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


রাজশাহীতে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে সিআরপির কর্মশালা


প্রকাশিত:
৩০ অক্টোবর ২০১৯ ০২:৪৬

আপডেট:
২১ মে ২০২৪ ১৮:৫২

ছবি: সিআরপির কর্মশালায় অতিথিবৃন্দ

প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও সুরক্ষা নিয়ে রাজশাহীতে সিআরপির এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় নগরীর শালবাগানস্থ পার্টি পয়েন্টে  দিনব্যাপী এই কর্মশালা শুরু  হয়। রাজশাহী মহানগর প্রতিবন্ধী উন্নয়ন পরিষদ ও পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি) আয়োজিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক।

 
মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন এমজেএফ এবং ডিএফআইডি'র সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এই কর্মশালায় রাজশাহীর বিভিন্ন প্রতিবন্ধীরা অংশগ্রহণ করেন। 
 
এসময় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য দেন, সিআরপির প্রজেক্ট ম্যানেজার সোমা বেগম, সিআরপি প্রকল্প কর্মকর্তা লুভনা ইয়াসমিন, সমাজসেবা অফিসার আশিকুজ্জামান, মিজানুর রহমান  প্রমুখ।
 
কর্মশালায় বক্তারা 'প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন-২০১৩' এর বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। 
এসময় তারা বলেন, শারীরিক অক্ষমতা কারো কাজের প্রতিবন্ধক হতে পারেনা। প্রতিবন্ধীরাও পারে এরকম দৃষ্টান্ত আছে। ইচ্ছাশক্তি থাকতে হবে। কাজেই এটার ব্যর্থতায় দায় দিয়ে পিছিয়ে গেলে হবেনা। স্ব স্ব জায়গা থেকে এগিয়ে যেতে হবে। নিজেকে সম্মানজনক জায়গায় দাঁড় করানোর পাশাপাশি দেশকে সামনে এগিয়ে নিতেও অগ্রণী থাকতে হবে। এসময় তারা প্রতিবন্ধীদের জন্য তৈরিকৃত আইন, তাদের সেবা পাওয়ার অধিকার এবং সম্মানের সাথে বেঁচে থাকার সাহস এসব বিষয় নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা করেন। কর্মশালায় সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণকারী প্রতিবন্ধীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। 
 
সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক বলেন, বর্তমান সরকার জনগণ বান্ধব সরকার। তিনি সবার সরকার। প্রতিবন্ধীদের জন্য আইন করা হয়েছে। এতে তারা সেবা ও সুরক্ষা সবকিছুই পাবে। এমনকি তাদের জন্য কর্মসংস্থান তৈরি হচ্ছে। 
 
কর্মশালায় হামিদুল হক বলেন, ভিক্ষাবৃত্তি নয়, কাজেই পরিচয়।  ভিক্ষাবৃত্তিকে না বলুন। প্রতিবন্ধীরা কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবে। তাদের চাহিদা অনুযায়ী যে যেটি করতে চায় করতে পারে। কেউ দোকান দিতে চাইলে, সবজির দোকান কিংবা যেকোনো কাজ করার জন্য আর্থিক সাপোর্ট পাবে। আমাদের কাছে আসবে আমরা তাদের ব্যবসার বা কাজের সুযোগ তৈরি করে দিব।
 
প্রতিবন্ধীদের উদ্দেশ্য করে জেলা প্রশাসক বলেন, ভাগ্যের পরিবর্তন নিজেকে করতে হবে। নিজের কাজ নিজেকে করতে হবে। আমরা সহায়ক হিসেবে আছি। সার্বিক সহযোগিতার জন্য দপ্তর আছে,কর্মকর্তা আছে। এমনকি প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও  সুরক্ষা আইনও রয়েছে। কোথাও হয়রানি হলে বা সেবা না পেলে অভিযোগ দিতে পারবে। এমনকি মামলাও করা যাবে। 
 
প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করে হামিদুল হক বলেন, এদের নিয়ে কাজ করুন। সর্বদা মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করুন। এরকম আরও সভা,সেমিনার হবে। বিভিন্নভাবে প্রতিবন্ধীদের সাহায্যে এগিয়ে আসুন। এমন কর্মশালা আয়োজনের জন্য আয়োজকদের  ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 
 
কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত আরা,সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোছাঃ হাসিনা মমতাজ, নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক মুক্তিযোদ্ধা বুলবুল রানী ঘোষ, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক ড. মিলন কুমান, প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা শরিফুল্লাহ,প্রতিবন্ধী উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি মতিউর রহমান, সাধারন সম্পাদক কহিনুর আরা বাধন, সিডাব সভাপতি মোঃ মাহমুদুন্নবী মুরাদ, নিএসএস সভাপতি মমিনুল ইসলাম প্রমুখ। 
 
আলোচনা শেষে সিআরপি প্রকল্প কর্মকর্তা লুভনা ইয়াসমিন সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। মধ্যাহ্নভোজ শেষে কর্মশালার সমাপ্তি ঘোষণা করেন প্রতিবন্ধী উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি মতিউর রহমান।
 
 
আরপি/আআ


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top