রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল ২০২৪, ১২ই বৈশাখ ১৪৩১


‘জনজীবনে বিভীষিকা তৈরি করলে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে’


প্রকাশিত:
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৭:১৭

আপডেট:
২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০১:০০

ছবি: সংগৃহীত

রাজনৈতিক দলগুলো তাদের কর্মসূচি পালন করবে। তবে কর্মসূচির নামে কেউ জনজীবনে বিভীষিকা তৈরি করতে চাইলে পুলিশ তাদের দায়িত্ব হিসেবে ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের চতুর্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এদিন বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনা সভাসহ নানা আনন্দ আয়োজনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক দলের একটি প্লান থাকে, ম্যানুফেস্টু থাকে। সেই অনুযায়ী তারা কাজ করবে এটাই স্বাভাবিক। দেশের জনগণ আশা করে রাজনৈতিক দলগুলো আশার দিশারী হবেন। কিন্তু কেউ যদি জনগণের ওপর কিছু জোর করে চাপিয়ে দিতে চায়, বিভ্রান্ত করে, রাস্তাঘাট বন্ধ করে জনগণের জীবনে বিভীষিকা তৈরি করতে চায়, তবে নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর তাদের যে দায়িত্ব সেটি তারা পালন করবে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, স্বরাষ্ট্র সচিব আখতার হোসেন। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন পুলিশ মহাপরিদর্শক বেনজির আহমেদ।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু নারী পুলিশ তৈরির জন্য আমাদের আহ্বান করে গিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর কন্যা আজকে নারীদের ক্ষমতায়নের জন্য বলছেন এবং নারী পুলিশের করার জন্য আমাদের বলেছেন। আমরা সেখানেও সফলতা দেখছি।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যেটা চেয়েছিলেন, জনগণের পুলিশ হতে হবে। এদেশের মানুষের হতে হবে। আজকে সেই জায়গায় পৌঁছেছে পুলিশ। আজ থেকে ১৫/২০ বছর আগের জায়গায় নেই এখনকার পুলিশ। শান্তির যে বার্তা সারাদেশে বয়ে যাচ্ছে তার পেছনে পুলিশের ভূমিকা রয়েছে। পুলিশ শুধু শৃঙ্খলার জন্য কাজ করে তা নয়। করোনার মতো দুর্যোগ পরিস্থিতিতেও কাজ করছে পুলিশ। উন্নয়নের পাশাপাশি আমাদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে। সেজন্যই আমরা পুলিশের সঙ্গে অন্যান্য বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করতে দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করছি।

নারীদের নিরাপত্তায় সাইবার ইউনিট কাজ করছে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সাইবার ক্রাইম বেড়েছে, অনেক বিস্তার লাভ করেছে যে, সবাই অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেছে। বিশেষ করে আমাদের মেয়েরা সাইবার ক্রাইম আতঙ্কে থাকেন। সেজন্য আমরা সাইবার ক্রাইম ইউনিট করেছি। আমরা সব কিছু করেছি জনগণের সেবা দেওয়ার জন্য, তাদের শান্তিতে রাখার জন্য। এখন ৯৯৯ এর সুবিধা জনগণ পাচ্ছে। বিপদগ্রস্ত কেউ ফোন করলে ৯৯৯ পুলিশে তার সাহায্যে এগিয়ে আসে।

এর আগে ঘোড়ার গাড়ি, হাতিসহযোগে বর্ণাঢ্য একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর দফতর থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পুলিশ লাইনে গিয়ে শেষ হয়। অনুষ্ঠানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

আরপি/এসআর-০৫



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top