রাজশাহী মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই ২০২৪, ২রা শ্রাবণ ১৪৩১


রাজশাহী কলেজে সৌরভ ছড়াচ্ছে আমের মুকুল


প্রকাশিত:
৫ মার্চ ২০২৪ ১৮:১৮

আপডেট:
১৬ জুলাই ২০২৪ ১২:১৬

ছবি: রাজশাহী পোস্ট

ফাল্গুনে আগুন লেগেছে তাই তো প্রকৃতি সেজেছে নতুন সাজে। প্রকৃতির এই সৌন্দর্য আরো বাড়িয়ে দিয়েছে হলুদ ও সবুজ রঙের আমের মুকুল। পল্লিকবি জসীম উদ্দিন এর 'মামার বাড়ি' কবিতার পংক্তি গুলো বাস্তবে রূপ পেতে শুরু করেছে।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) সকালের দিকে কলেজ ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, রবীন্দ্র-নজরুল চত্বর থেকে অধ্যক্ষের বাস ভবনের রাস্তার পাশে, বিএনসিসি ভবন পশ্চিমে, ইংরেজি ভবনের সামনে, ছাত্রাবাসের বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ ভবন ও বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ভবনের সামনের এলাকাসহ ক্যাম্পাসের সব আমগাছে ফুটছে মুকুল।

থোকা থোকা মুকুলের ভারিতে হেলে পড়া গাছে যেন মেলা বসেছে মৌ মাছির। মুকুলের মৌ মৌ সুগন্ধ, মৌমাছির গুনগুন শব্দ আর কোকিলের মিষ্টি কন্ঠের কুহু কুহু ডাকে বিমোহিত রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাসের ছাত্র-ছাত্রীদের। রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাস সেজেছে নতুন সাজে তাই শুধু শিক্ষক- শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থী নয় মুগ্ধ হচ্ছেন ক্যাম্পাস দর্শনার্থীরাও ।

অর্থনীতি বিভাগে ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ নায়েব আলী বলেন, আমি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে এসে রাজশাহী কলেজে পড়াশোনা করছি কিন্তু আমার মনে হচ্ছে আমি আমার সেই গ্ৰামেই আছি‌। চারিদিকে আমের মুকুলের সুঘ্রাণ। মৌমাছির গুনগুন শব্দ আমার মনকে নিজ গ্ৰামের থাকার অনভূতি যোগাচ্ছে। আমি রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাসের এই সৌন্দর্যে মুগ্ধ।

রসায়ন বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী মোসাঃ রুকাইয়া আক্তার বলেন, রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাসে আসলেই মন খুশি হয়ে যায় তার উপরে আমের মুকুলের সুঘ্রাণ কি যে ভালো লাগে বলার ভাষা নেই। বিকেলে কলেজ ক্যাম্পাসে দলীয় পাঠদানের জন্য আমার আগ্ৰহ অনেক বেশী হয়েছে শুধুমাত্র এই ঋতুরাজ বসন্তের ছোঁয়ায় সজ্জীত আমের মুকুলের জন্য।

রাজশাহী কলেজের মালি মোঃআনোয়ার হোসেন বলেন, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের পরামর্শে গাছগুলোর পরিচর্যায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন তারা। আশা করছেন বড় কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে আমের ফলন ভালো হবে। গাছে গুটি আসার আগে থেকেই গাছগুলোর পরিচর্যা এবং পরামর্শ অনুযায়ী মুকুল আসার পর থেকে বিভিন্ন রোগবালাই দমনের ব্যবস্থা শুরু করে দিয়েছি।

উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জান্নাতুল ফেরদাউস তিনি বলেন, কলেজে প্রবেশ করতেই মন শীতল হয়ে যায়, বসন্তের আগমনে রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাসে ভেসে বেড়াচ্ছে আম গাছের মুকুলের সুঘ্রাণ। এই সুঘ্রাণে মন সতেজ হয়ে যায়, এক অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে মনে।
তিনি আরো বলেন, রাজশাহী কলেজ ক্যাম্পাস বনায়নের থেকে খুব একটা ভিন্ন নয় আর বসন্ত আসলে আমের মুকুলের সুঘ্রাণে আমি তা আরো ভালো ভাবে উপলব্ধি করতে পারি।

রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা:আব্দুল খালেক বলেন, কলেজ প্রশাসন যতগুলো আম গাছ রয়েছে সব গুলোর দিকে নজর রাখছে। গাছ গুলোর মুকুল যেনো ঝড়ে না যায় সে বিষয়ও খেয়াল রাখা হচ্ছে । বিশেষ করে কাল বৈশাখী ঝড়ে বেশিরভাগ আমের মুকুল ঝড়ে যায়। সেটি যেনো না হয় এ জন্য যে যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার সে সব গুলোই করা হয়েছে। আসা করা যায় এইবার কলেজের গাছ গুলো থেকে আশানুরূপ ফল পাওয়া যাবে ।

 

 

 

আরপি/যেডএ



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top