রাজশাহী মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই ২০২৪, ২রা শ্রাবণ ১৪৩১


নানা আয়োজনে রাজশাহী কলেজে শহিদ দিবস পালিত


প্রকাশিত:
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ০৭:৪৪

আপডেট:
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ০৭:৫৩

ছবি: পুষ্পস্তবক অর্পণ

নানা আয়োজনে রাজশাহী কলেজে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। সোমবার দিনের প্রথম প্রহরে কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা. আব্দুল খালেক ও উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা. ওলিউর রহমানের নেতৃত্বে কলেজ শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে কলেজে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। 

এরপর সকাল সাড়ে ৯টায় অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের নিয়ে সীমিত পরিসরে কলেজের অভ্যন্তরেই প্রভাত ফেরিসহ শহিদ মিনার ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। 

সকাল ১০ টায় কলেজ মিলনায়তনে “৫২ ভাষা আন্দোলন: বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও স্বাধিকার চেতনার উন্মেষ” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় আলোচকরা ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস, প্রেক্ষাপট ও তাৎপর্য, ভাষাতাত্ত্বিক জাতীয়তাবাদের উত্থান, একুশের চেতনা, শহিদ মিনার নির্মাণের ইতিহাস এবং বাঙালি চেতনার অপরিমেয় শক্তির স্বরূপ তুলে ধরেন। তারা বলেন, একুশ আমাদের স্বাধীনতার প্রথম সোপান, যা অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাঙালিকে এক সুতায় বেঁধেছে। সর্বস্তরে বাংলা ভাষা প্রচলন হওয়ারও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

এসময় অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহা. আব্দুল খালেক বলেন, মহান একুশের চেতনাকে হৃদয়ে ধারণ করে সবাইকে মনে-প্রাণে ও কর্মে লালন করতে হবে। পৃথিবীর কোন ভাষা যেন হারিয়ে না যায়। বাংলা ভাষার শুদ্ধ চর্চার মাধ্যমে বাংলাদেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাবে বলেও প্রত্যাশা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মাসব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। কর্মসূচির মধ্যে ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি কলেজের বিভিন্ন ক্লাব/সংগঠন-এর তত্ত্বাবধানে প্রবন্ধ রচনা, কবিতা আবৃত্তি, বানান শুদ্ধিকরণ, উপস্থিত বক্তৃতা, কুইজ, একুশের গান ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

২০ ফেব্রুয়ারি বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা দিনব্যাপী বর্ণিল আলপনায় কলেজ ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। সন্ধ্যায় অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষের নেতৃত্বে শিক্ষকমণ্ডলীর অংশগ্রহণে কলেজ শহিদ মিনারে মহান ভাষা শহিদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও দিবস কেন্দ্রিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সবশেষে বাদ জোহর কলেজ জা’মি মসজিদে ভাষা শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া মাহ্ফিলের মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি সমাপ্ত হয়।

 

 

 

আরপি/এসআর-০৯



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top