রাজশাহী সোমবার, ৩০শে নভেম্বর ২০২০, ১৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭


১৫ দিনের মধ্যে রাজশাহীর বাজারে আসবে মুড়ি কাটা পেঁয়াজ


প্রকাশিত:
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৫:২৫

আপডেট:
১৯ নভেম্বর ২০২০ ১৫:২৬

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহীতে ১৫ দিনের মধ্যে বাজারে আসবে মুড়ি কাটা পেঁয়াজ। ফলে কমতে শুরু করবে পেঁয়াজের দাম। অপরদিকে বছরজুড়ে রন্ধনশিল্পের অত্যাবশ্যকীয় এ পণ্যটির দামে নাজেহাল মানুষরা পাবে কিছুটা স্বস্তি।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে ১৭ হাজার ৯৯৩ হেক্টর জমিতে ৩ লাখ ৩০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এরমধ্যে মুড়ি কাটা পেঁয়াজ ৩ হাজার ৫৫৫ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে। জেলার মোহনপুর, তানোর, চারঘাট, বাগমারাসহ সবকটি উপজেলার বেশিরভাগই চাষ হয় এ পেঁয়াজ। রাজশাহী জেলায় পেঁয়াজের চাহিদা মাত্র ৬০ থেকে ৬৫ হাজার মেট্রিক টন। প্রায় ২ লাখ ৬৫ হাজার টন পেঁয়াজ উদ্বৃত্ত থাকবে বলেও জানায় কৃষি বিভাগ।

ছোট পেঁয়াজ বীজ হিসাবে জমিতে রোপণ করা হয় বলে স্থানীয়ভাবে একে মুড়িকাটা পেঁয়াজ বলা হয়। এই পেঁয়াজ গাছে প্রথমে কালি বা পাতাপেঁয়াজ (পাতাসহ বিক্রি) হয় এবং কালিকাটার/পাতা খাওয়ার উপযোগী না থাকলে পাতা কেটে শুধু পেঁয়াজ বিক্রি করা হয়। অন্যান্য বছরগুলোতে প্রতি কেজি পাতাসহ পেঁয়াজ ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি করা হলেও এবছর অনেকটা কম দামে বিক্রি করতে হবে বলে মনে করছেন কৃষকরা।

মুড়ি কাটা পেঁয়াজ চাষ লাভজনক হওয়ায় কৃষকরা দিন দিন ঝুঁকে পড়েছে। রাজশাহী অঞ্চলে চলতি বছরে দফায় দফায় বন্যায় আবাদ মৌসুম কিছুটা পিছিয়ে যায়। বছরের সেপ্টেম্বর থেকে চলতি নভেম্বর পর্যন্ত এ পেঁয়াজ রোপণ করা হচ্ছে । সেপ্টেম্বরের শুরুতে রোপণ করা পেঁয়াজ এ মাসের শেষের দিকে বাজারে আসবে। সেইসাথে রাজশাহীর পেঁয়াজ উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে এমনটাই আশাবাদী রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

কৃষকরা জানান, ১ থেকে ২০ দিনের মধ্যে এই পেঁয়াজ বাজারে আসবে। মুড়ি কাটা পেঁয়াজ বাজারে আসলে পেঁয়াজের দাম কমবে। যেহেতু পুরাতন পেঁয়াজ ৮০-৮৫ টাকা কেজি, সেহেতু এ ভেজা পেঁয়াজ বেশি দামে কেউ কিনবে না। জেলার অনেক কৃষক মুড়িকাটা পেঁয়াজ চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছে। অন্যান্য বছরের তুলনায় বেশি দামে বীজ কিনতে হয়েছে । তারপরেও ভালো দামের আশা করছেন তাঁরা। কৃষি বিভাগ থেকে পেঁয়াজ বীজ চাষীদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করা হচ্ছে। এ বছর মুড়িকাটা পেঁয়াজের ফলন ভাল আশা করছেন।

রাজশাহী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামছুল হক জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৭ হাজার ৯৯৩ হেক্টর জমিতে। এরমধ্যে মুড়ি কাটা পেঁয়াজ ৩ হাজার ৫৫৫ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে। পেঁয়াজের ভালো দাম পাওয়ায় এ বছর পেঁয়াজ চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন চাষিরা। মুড়িকাটা পেঁয়াজ কৃষকরা আবাদ করছে।

মুড়িকাটা পেঁয়াজ বাজারে উঠলে পেঁয়াজের দাম কমে যাবে। ১৫ দিনের মধ্যে মুড়িকাটা পেঁয়াজ বাজারে উঠবে। নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসলে ৪০-৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হবে পেঁয়াজ। কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা হচ্ছে। এরপর কৃষক দানা পেঁয়াজ আবাদ করবে।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top