রাজশাহী বৃহঃস্পতিবার, ১১ই আগস্ট ২০২২, ২৮শে শ্রাবণ ১৪২৯


রাজশাহীতে শ্রেষ্ঠ ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান


প্রকাশিত:
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১১:২২

আপডেট:
৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১১:৫৩


রাজশাহী বিভাগীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ ২০১৯ এ শ্রেষ্ঠ ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। ৫ টি ক্যাটাগরিতে ৫ জন নারীকে শ্রেষ্ঠ জয়িতা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।


মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমীতে জয়িতা সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে ও রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের আয়োজনে জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ ২০১৯ শীর্ষক বিভাগীয় পর্যায়ের এ সম্মাননা অনুষ্ঠিত হয়।

বিভাগীয় পর্যায়ে বিজয়ী এ জয়িতারা হলেন, অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী শ্রেষ্ঠ জয়িতা পাবনার ভাঙ্গুয়া উপজেলার সুমনা সুলতানা সাথী, শিক্ষা ও চাকুরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী শ্রেষ্ঠ জয়িতা বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মিফতাহুল জান্নাত, সফল জননী নারী হিসেবে শ্রেষ্ঠ জয়িতা হয়েছেন, রাজশাহীর সপুরা এলাকার আমিনা হক, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যেমে জীবন শুরু করেছেন যে নারী এই ক্যাটাগরিতে জয়িতা হয়েছেন, পাবনার চাটমোহর উপজেলার রোজিনা খাতুন ও সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখে জয়িতা হয়েছেন, রাজশাহী নগরীর ২ নং ওয়ার্ডের সেলিনা বেগম।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে র্ভাচুয়ালি উপস্থিত থেকে বক্তব্যে রাখেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এমপি ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। তিনি বলেন, সমাজের অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারীদের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এরই অংশ হিসেবে সাফল্য অর্জনকারী নারীদের সংবর্ধিত করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, জনবান্ধব শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় দেশে ভ্যাকসিন এসেছে। যেখানে অন্যান্য দেশ টাকা দিয়েও ভ্যাকসিন পাচ্ছে না। এরপরও বিএনপি-জামাত এটার বিরোধীতা করে সমালোচনা করছে। তারা যেন মানুষের মৃত্যুই চায়।

অনুষ্ঠানে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) ড. মো. হুমায়ুন কবীর এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে ভ্যার্চুয়ালি বক্তব্যে রাখেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কাজী রওশন আক্তার। বক্তব্যে রাখেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ঠ সমাজসেবী শাহিন আক্তার রেনী, মহিলা আসন ৩৭ এর সাংসদ আদিবা আনজুম মিতা, পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক, উপ-পুলিশ কমিশনার বোয়ালিয়া মো. সাজিদ হোসেন প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক মো. জিয়াউল হক ও রাজশাহী মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শবনম শিরিনসহ রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়, রাজশাহী জেলা প্রশাসন ও রাজশাহী মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, রাজশাহী বিভাগের ৮ টি জেলার ৬৭টি উপজেলায় প্রাথমিকভাবে ৩৩৭টি আবেদন পাওয়া যায়। জেলা থেকে ৫ টি ক্যাটাগরিতে ২ জন করে ১০ জনের একটি তালিকা তৈরি করা হয়। বিভাগীয় কমিশনারের সভাপতিত্বে বিচারকরা প্রতিটি ক্যাটাগরি থেকে চুড়ান্ত পর্যায়ে জয়িতা নির্বাচনের জন্য ৭০ নম্বরের মার্কিং করেন। প্রাথমিকভাবে প্রতি ক্যাটাগরিতে ২ জন করে মোট ১০ জন জয়িতা নির্বাচন করা হয়। বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতি ক্যাটাগরিতে ১ জন করে মোট ৫ জন জয়িতাকে চুড়ান্তভাবে নির্বাচন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের নিয়ে প্রমাণ্য চিত্র উপস্থাপন করা হয়। শেষে জয়িতাদের মাঝে সনদ, ক্রেস্ট, উত্তরীয়সহ সম্মানি প্রদান করা হয়।

 

আরপি/ এমআই 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top