রাজশাহী সোমবার, ২২শে এপ্রিল ২০২৪, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১

বাংলা ভাষাকে সর্বোচ্চ মর্যাদায় আসীন করতে হবে: রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার


প্রকাশিত:
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১০:৩০

আপডেট:
২২ এপ্রিল ২০২৪ ২১:৫৬

ছবি: আলোচনা সভা

বাংলা ভাষাকে সর্বোচ্চ মর্যাদায় আসীন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর।

মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমিতে ‘জাতীয় জীবনে একুশের চেতনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেন, ৫২’র ভাষা আন্দোলন বাঙালির ইতিহাসে এক অনন্য অধ্যায়। এর মাধ্যমে তৈরি হয়েছে বাঙালি জাতির সাহস। সেই সাহসে বলিয়ান হয়েই মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিসংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছিল এবং সেই পথ ধরে তাঁরা মাত্র ৯ মাসে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিল। তাই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বাংলা ভাষাকে সর্বোচ্চ মর্যাদার আসনে আসীন করতে হবে।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, ভাষা আন্দোলনের পথ ধরে স্বাধীনতা অর্জন এবং পরবর্তী সময়ে একুশের চেতনায় বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে স্থান লাভ করেছে, এই অর্জন জাতি হিসেবে আমাদের বড় অর্জন ও গৌরবের। এ সময় ভাষা আন্দোলনের সকল শহিদ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতাসহ মুক্তিযুদ্ধের সকল শহিদকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন তিনি।

জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন ভাষাসৈনিক মোশাররফ হোসেন আখুঞ্জী। পরে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে চিত্রাঙ্কন, রচনা, আবৃত্তি ও দেশাত্মবোধক সংগীত প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এদিকে ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে দিনভর রাজশাহীতে পালিত হচ্ছে অমর একুশে। প্রথম প্রহরে নগরীর কোর্ট শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন- রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, রাজশাহী রেঞ্জের উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক (ডিআইজি) আনিসুর রহমান, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, রাজশাহী জেলা প্রশাসক (ডিসি) শামীম আহমেদ, রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সাইফুর রহমান প্রমুখ। এছাড়াও রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে নগর আওয়ামীলীগ সভাপতি মোহাম্মদ আলী কামাল ও ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারের নেতৃত্বে পুষ্পস্তর্বক অর্পন করে নগর আওয়ামী লীগের দুইটি অংশ।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) জামিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, দিবসটি উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে আজ। শহীদ মিনার এলাকায় পুলিশ মোতায়নের পাশাপাশি টহল অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সাদা পোশাকে কর্তব্য পালন করছেন। একুশের প্রথম প্রহর থেকে আজ সকাল পর্যন্ত নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল পুরো রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার, ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনার ও কোর্ট শহীদ মিনার এলাকা।

 

 

আরপি/এসআর



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top